তপন মণ্ডলের কুড়নোর অভ্যেসে গড়ে উঠল হাওড়ার রামকৃষ্ণ সংগ্রহশালা

0

সেই ছোট্ট বেলার অভ্যেস। যেখানে যা চোখে পড়ল, কুড়িয়ে নেওয়া। মা বকতেন, বাবা বকতেন, দাদু, দিদা-কে না বকেছেন। তাঁরাই বা কীভাবে জানবেন, ছোট্ট ছেলেটির সেই অভ্যেসই ছোটখাট একটা সংগ্রহশালার জন্ম দেবে! নাম রামকৃষ্ণ সংগ্রহশালা!

হাওড়ার আমতা থানা এলাকার রসপুর গ্রাম। মূল জনপদ থেকে ৮ কিলোমিটার দূরে এই গ্রামের বাসিন্দা তপন মণ্ডল। টানা ৪০ বছর ধরে সংগ্রহ করে চলেছেন ইতিহাস। ছোট বেলার সেই কুড়িয়ে নেওয়ার অভ্যেস বাবা-মায়ের বকুনিতে এতটুকু ভাটা পড়েনি। যত বয়স বেড়েছে অভ্যেস যেন আরও জাঁকিয়ে বসেছে। পাল্টেছে শুধু সংগ্রহের দৃষ্টভঙ্গি। ছোটবেলা যেটা অবুঝ মনে কুড়িয়ে নিয়ে বাড়ি বোঝাই করতেন, এখন তিনি কুড়োন ইতিহাস। আমাদের চারপাশে অনাদরে, অবহেলায় পড়ে থাকা ইতিহাস বয়ে বেড়ানো হাজারো সাক্ষী। সাধারণের চোখে তার কোনও মূল্যই হয়ত নেই, অনেকে তার মূল্য বোঝেনও না। তপনবাবুর চোখে সেগুলিই নাকি মণি-মুক্তো। ইতিহাস বয়ে বেড়ানো নিদর্শন।

সেই সঙ্গে আরও একটা অভ্যেস আছে। তপনবাবুর পায়ের তলায় সর্ষে। ব্যাস আর পায় কে। এখানে সেখানে চর্কির মতো চষে বেড়াচ্ছেন এক অজানা নেশায়। যেখানে গিয়েছেন, যখন যা পেয়েছেন কুড়িয়ে এনেছেন। সংগ্রহের টানে কার্যত আচ্ছন্নের মতো গত ৪০ বছর ধরে এখানে সেখানে, রাজ্যে রাজ্যে, জনপদ থেকে জনপদে ঘুরে বেড়াচ্ছেন রসপুরের প্রত্যন্ত গ্রামের এই বাসিন্দা। গুপ্তযুগের নিদর্শন থেকে শুরু করে তিব্বতের লোকশিল্পীদের যন্ত্র, বিভিন্ন দেশের মুদ্রা, টাকার নোট, বিভিন্ন প্রদেশের, বিভিন্ন গ্রামের স্থানীয় শিল্পকর্ম, হাড়ি, বাসন, নানা আসবাব,  ইট, পাথর-সবই রয়েছে তপন বাবুর ভান্ডারে। আছে হাজার বছরের পুরনো মুর্তির বিরাট সংগ্রহ। এক একটা মুর্তির পেছনে এক এক রকম ইতিহাস। ‘গল্প করতে বসলে দিন কেন, মাস বছরও কেটে যেতে পারে। তবে জানেন তো, রাস্তাটা খুব একটা সহজ ছিল না। কুড়িয়ে নেব বললেই হাতে চলে আসে না। সংগ্রহ করতে গিয়ে হাজারো বাধা, তাচ্ছিল্য হজম করতে হয়েছে। প্রশংসাও যে জোটেনি তা নয়। সামনে যাই এসেছে তোয়াক্কা করিনি, নিজের কাজটুকু করে গিয়েছি মনের তাগিদে’, বলছিলেন তপন।

তপনবাবুর নিজের সংগ্রহ ভান্ডার নিয়ে অখ্যাত রসপুর গ্রামে গড়ে উঠেছে এক সংগ্রহশালা। একক প্রচেষ্টায় এতবড় সংগ্রহশালা গড়ে তোলার নজির বিরল। ‘অতীতটাই ইতিহাস। আজ যা বর্তমান কাল তা ইতিহাস হবে। নতুন প্রজন্মের কাছে সেই ইতিহাস তুলে ধরতে চাইছি। কিশোর বয়সের এক নেশাই এই সংগ্রহশালার জন্ম দিল’, বলে চলেন তপন।

রামকৃষ্ণ সংগ্রহশালা নামের এই মিনি মিউজিয়ামকে নিয়ে হাওড়াবাসীর উৎসাহের খামতি নেই। স্কুল পড়ুয়া থেকে লেখক, গবেষকদের ভিড় লেগেই থাকে। তাই দেখে তৃপ্ত তপন মণ্ডল বলেন, ‘যতদিন বাঁচব, এভাবেই ইতিহাসের মণিমুক্তো কুড়িয়ে যাব’।