শুরুয়াতি ব্যবসায় উবেরের নতুন সংযোজন “উবেরএক্সচেঞ্জ”

0

যাতায়াত ব্যবস্থায় অভাবনীয় সারা ফেলে দেওয়ার পর উবের এবার হাজির ভারতের শুরুয়াতি ব্যবসায় পরামর্শদাতা হিসাবে। উদ্যোগীরা পেয়ে যেতে পারেন ব্যবসা শুরু করার মহামূল্যবান কিছু ফর্মুলা অথবা টিপস্। ইনভেস্ট ইন্ডিয়ার সাথে গাঁটছড়া বেঁধে ‘উবেরএক্সচেঞ্জ’ নামে একটা স্টার্টআপ মেন্টরশিপ প্রোগ্রাম শুরু করতে চলেছে তাঁরা এই বছরেই। কোম্পানির হেডকোয়ার্টার সান ফ্রানসিসকো থেকে সংবাদ সূত্রে খবর আগামী বছর থেকেই তাঁরা লিডারশীপ নিয়ে বিভিন্ন আলোচনা সভার আয়োজন করবে বিভিন্ন শহরে যেখানে তাদের বিভিন্ন উচ্চপদস্থ এক্সিকিউটিভরা নিজেদের মতামত শেয়ার করে নেবেন উদ্যোগ পতিদের সাথে।

এই প্রোগ্রামে মূলত শুরুয়াতি ব্যবসায় ঊর্ধ্বগতদের বিভিন্ন সমস্যার বিষয়ে আলোকপাত করবেন তাঁরা। ব্যবসা করতে গিয়ে তাঁরা কি ধরণের অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছে, কোথা থেকে ভালো পরিমাণ বিনিয়োগ পাওয়া সম্ভব, প্রোডাক্ট ডিজাইনিং থেকে শুরু করে ব্যবসাকে আরও উন্নত করতে গেলে কি কি স্টেপ নেওয়া দরকার – এইসব বিষয় নিয়েই মূলত আলোচনা হবে। আর সব শেষে শীর্ষ স্থানাধিকারি দশটা স্টার্টআপ তাদের টীম নিয়ে সান ফ্রানসিসকোতে গিয়ে আন্তর্জাতিক বিনিয়োগকারীদের সাথে দেখা করার সুযোগ পাবে, তাদের সাথে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা থেকে শুরু করে সেখানকার আন্ত্রেপ্রেনরদের সাথে কথা বলতে পারবে। সর্বোপরি পুরো উবের টিমের সাথে দেখা করার সুযোগ থাকবে তাদের হাতে।

এই পাবলিক – প্রাইভেট উদ্যোগ থেকে ভারতীয় অর্থনীতি বেশ উপকৃত হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। ছাত্র, আন্ত্রেপ্রেনর অথবা বড় ইন্ডাস্ট্রিয়ালিস্টরা একসাথে হবে এই অনুষ্ঠানে, সবাই নিজেদের মতামত আদান প্রদান করতে পারবে, ব্যর্থতা থেকে আবার নতুন করে শুরুর রেসিপিটা জানা সম্ভব হবে তাদের জন্য। ঝুঁকি নেওয়ার একটা মানসিকতা তৈরি হবে ভারতীয় অর্থনীতিতে। ভারতকে বিশ্বের দরবারে স্টার্টআপের কেন্দ্র করে তোলার যে স্বপ্ন আমাদের প্রধানমন্ত্রী দেখিয়েছেন সেই পথে হয়তো আরও এক ধাপ এগিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে এই প্রোগ্রামের মাধ্যমে।

উবেরের চিফ এক্সিকিউটিভ ত্রাভিস কালানিচের মতে ' আজকের দিনে সব মানুষই প্রায় নিজের মতো করে কিছু একটা করার কথা ভাবছে, তাই আন্ত্রেপ্রেনরশিপের বিষয়ে সবাই খুব উৎসাহী হয়ে উঠছে আর এই কারণেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ‘স্টার্টআপ ভারত’ উদ্যোগ খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠছে ক্রমশ। এইসব কথা মাথায় রেখেই আমরা আমাদের নিজেদের মতামত, চিন্তা ভাবনা আরও একশো জনের সাথে শেয়ার করতে চাই যারা নতুন ব্যবসা শুরু করতে চায়, যারা নিজেদের মতো করে একটা সমান্তরাল অর্থনীতির সরিক হতে চায়। আসলে দিনের শুরুটা যেমন সারাদিন কেমন যাবে সেটা নির্ধারণ করে দেয় তেমনি ব্যবসার শুরুটাই হল আসলে সাফল্যের মূল উৎস ’।

ডি.আই.পি.পি সেক্রেটারি আমিতাভ কান্ত আমাদের জানিয়েছেন ‘জানুয়ারি মাসের ষোল তারিখ উবেরএক্সচেঞ্জের প্রথম অনুষ্ঠানে মিস্টার কালানিচ তাঁর উদ্বোধনী বক্তৃতায় ভারতীয় শুরুয়াতি ব্যবসায় সাফল্যের দিকগুলো নিয়েই আলোচনা করবেন, এখানকার উদ্যোগ পতিদের সাথে নিজের আন্ত্রেপ্রেনরশিপ জীবনের অভিজ্ঞতা শেয়ার করবেন। জ্ঞান এবং ধারনার আদান-প্রদান থেকে ভারতীয় স্টার্টআপে একটা পরিবর্তন আসবেই। তিনি মনে করেন ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে ভারত আর সিলিকন ভ্যালির মধ্যে একটা যোগসূত্র স্থাপন করতে পারবে এই মেন্টরশিপ প্রোগ্রাম। তিনি আরও জানিয়েছেন যে এই প্রোগ্রামের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক স্টার্টআপ কমিউনিটির সাথে ভারতীয় উদ্যোগীরা আরও বেশি করে নিজেদের সুবিধা অসুবিধা, ভবিষ্যৎ সুযোগ নিয়ে আলোচনা করতে পারবে, ফলতই ভারতীয় স্টার্টআপ যেমন উপকৃত হবে, তেমনি দেশের অর্থনৈতিক অবস্থারও একটা অবশ্যম্ভাবী পরিবর্তন সূচনা করবে উবেরএক্সচেঞ্জ।

( অনুবাদ - নভজিত গাঙ্গুলী )