দি চায়না ওপেনে বিরল জয় ভারতের মেয়ে সিন্ধুর

0

দি চায়না ওপেন ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টের ফাইনালে ভারতের মুখ উজ্জ্বল করলেন পি ভি সিন্ধু। চিনের প্রতিযোগী সান ইউকে হারিয়ে তিনি জিতলেন ৭ লক্ষ ডলার অর্থমূল্যের পুরস্কার। ভারতের পি ভি সিন্ধু এখন বিশ্বসেরাদের তালিকায় ১১ নম্বরে।

গত ৩০ বছরে বিশ্বের যে সমস্ত খেলোয়ার চায়না ওপেন ব্যাডমিন্টনে জয়ীর শিরোপা ছিনিয়ে নিতে পেরেছেন - তার ভিতর সিন্ধু হলেন তৃতীয় খেলোয়ার – যিনি চিনা নন। পি ভি সিন্ধুর আগে ২০১৪ সালে ভারতের মেয়ে সাইনা নেওয়াল এই খেতাব জয় করেছিলেন। এরপর সিন্ধুর হাত ধরে ফের জয় পেল ভারত।

৩০ বছরে সিন্ধুই দ্বিতীয় ভারতীয় যিনি এই খেতাব জয় করতে পেরেছেন। উল্লেখ্য, গত বছর সাইনা চায়না ওপেন ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করে রানার্স হয়েছিলেন।

রিও অলিম্পিকে রৌপ্য পদক জয়ী সিন্ধুর এই নতুন জয় যে দেশের গৌরব বাড়াল সে কথা বলাবাহুল্যই।

চিনের প্রতিযোগী সান ইউ-এর সঙ্গে সিন্ধুর হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়েছে। লড়াইয়ের প্রতিটি মুহূর্তই ছিল ঘোরতর রোমাঞ্চে ঠাসা। গত বছর ডেনমার্ক ওপেনে সুপার সিরিজে লড়াইয়ে সিন্ধু কোনও কসুর না রাখলেও শেষপর্যন্ত এঁটে উঠতে পারেননি তিনি। চিনের প্রতিযোগী Li Xuerei-এর কাছে হেরে গিয়েছিলেন। প্রসঙ্গত. ২০১২ সালের অলিম্পিকের চ্যাম্পিয়ন ছিলেন চিনের Li Xuerei।

ওই হারের পরে সিন্ধুর পাল্টা জয় ভারতকে আবারও গৌরবান্বিত করল। তিন মাস আগে রিও অলিম্পিকে প্রথম ভারতীয় মহিলা খেলোয়ার হিসাবে রৌপ্যপদক ছিনিয়ে নিয়েছিলেন তিনি। এর কয়েক মাসের মাথায় সিন্ধুর ‌জয় দেশকে নতুনভাবে উদ্দীপ্ত করবে।

এক ঘণ্টা নয় মিনিটে সিন্ধু একরকম ধুয়েমুছে দিয়েছেন চিনের মেয়ে সান ইউকে। Haixia অলিম্পিক স্পোর্টস সেন্টারে স্কোরবোর্ডে ২১-১১, ১৭-২১ ও ২১-১১ ফলাফলটি ঝলমল করছিল।

সান ইউকে প্রথম থেকে দারুণ চাপে রেখেছিলেন সিন্ধু। প্রথম পর্বে এগিয়ে ছিলেন ১১-৫-এ। এঁটে উঠতে চিনের মেয়ে ইউকে যথেষ্ট বেগ পেতে হয়েছে। একসময় সিন্ধুর বেশ কটি ফোরহ্যান্ড ও ব্যাকহ্যান্ডে সান ইউ তিন-তিনটি পয়েন্ট বাঁচাতে পারলেও তাঁর শেষরক্ষা হল না।

দ্বিতীয় পর্বে স্কোর ১১-৭, ১৪-১০-এ তুলে দেন সিন্ধু। কিন্তু ফল দাঁড়ায় ১৪-১৪-তে। এরপর সিন্ধু ক্রমে ভাল অবস্থায় যেতে থাকেন। বিরতির আগে ১১-৮ –এর সুবিধাজনক ফলাফলে পৌঁছে যান সিন্ধু।

ভারতের মেয়ের সঙ্গে চিনের প্রতিযোগীর রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ের সাক্ষী দর্শকাসন দেখল, কীভাবে সিন্ধু ভারতকে এনে দিলেন বিরল জয়!