২১ মে কলকাতায় কোডারদের মহারণ HackOn101 

0

কলকাতায় হ্যাকাথন। নতুন নয়। কিন্তু ট্রেন্ডও ছিল না। তবে কলকাতার তথ্য প্রযুক্তির ওয়েদার বদলাচ্ছে। স্বাবলম্বী হচ্ছে এই শহর। পুনে, বেঙ্গালুরু, নয়ডা, মুম্বইয়ের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে রেসিং ট্র্যাকে দাঁড়িয়েছে এই শহরের তরুণ প্রজন্ম। এবার ধীরে ধীরে ট্রেন্ড হয়ে যাবে কোডিং কালচার। আর তার প্রমাণ আট ঘন্টার লাগাতার হ্যাকাথনের কথা ভেবেছে কলকাতার বিপি পোদ্দার ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের কম্পিউটার সায়েন্সের ফাইনাল ইয়ার।

অগ্ণিরুদ্র লাহিড়ি, শুভশ্রী মজুমদার, নবনীতা পালরা বলছিল ওদের আইডিয়া বাল্ব জ্বলে ওঠার গল্প। কলেজের সুবোধদার চায়ের দোকানে বসে আড্ডা দিতে দিতেই আইডিয়া আসে। একটা হ্যাকাথন করলে কেমন হয়। যেমন ভাবা তেমন কাজ। আমরা প্ল্যানটা ছকে ফেলি। আমাদের ডিপার্টমেন্ট হেডকে বলি। তিনিও উৎসাহ দেখান। আমাদের প্রস্তাব সহজেই পাস। এই উদ্যোগে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন Trendieapp.com এর সিইও প্রতিষ্ঠাতা সৌরভ কর্মকার Campuskarma.in এর কর্ণধার রোহিত গুপ্তা এবং codeblix.com প্রতিষ্ঠাতা সিইও অনুরাগ প্রজাপত।

ফলে ২১ মে আসছে দিন। কলকাতার কোডারদের চিনে নিন। বিপি পোদ্দার ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে এই প্রথম। Trendieapp নামে একটি তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার সৌজন্যে B. P. Poddar Institute of Management and Technology এই হ্যাকাথনের আয়োজন করছে। নাম দেওয়া হয়েছে HackOn 101।

কলকাতার সংস্কৃতির এই ভোলবদলের সূচনা হয়েছিল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। গতবছর এরকম সময়েই হ্যাকাথনের আসর বসেছিল সেখানে। কলকাতার কোডারদের দুর্দান্ত পারফর্মেন্স দেখে চক্ষু ছানাবড়া হয়ে গিয়েছিল বিচারকদের। ক্যাম্পাস কর্মার রোহিত গুপ্তা জানাচ্ছেন কলকাতার বিভিন্ন ক্যাম্পাসে ঠেক বাজির চরিত্র বদলাচ্ছে। সব খারাপ হচ্ছে, গোটা তরুণ প্রজন্ম উচ্ছন্নে যাচ্ছে, নেশা আর হতাশায় ডুবছে এমন ভাবার কারণ নেই। কলকাতা স্বপ্ন দেখছে নতুন কিছু করার। এতদিনের ক্লেদ, বাণিজ্যে অনীহা ঝেড়ে ঝুঁকি নেওয়ার সাহস করতে চাইছে কলকাতা। নানান ক্যাম্পাসে চলছে নানান কর্মসূচি। আপনি বলতেই পারেন কলকাতা এখন ম্যাচ ফিট। ফ্রি অ্যান্ড ওপেন সোর্স সফ্টঅয়্যার নিয়ে সচেতনতাই বলুন, কিংবা ডেটা সায়েন্স নিয়ে কৌতুহল, অথবা IOE নিয়ে মগজমারি অথবা স্টার্টআপ আইডিয়া নিয়ে বৈঠক সব ব্যাপারেই কলকাতার উদ্দীপনার অভাব নেই।

কদিন আগেই codeblix নামে অপর একটি সংস্থা coding নিয়ে একটি দুর্দান্ত ওয়ার্কশপ করেছে কলকাতায়। ছিল ইন্টারনেট অব এভরিথিং নিয়েও বিশদ আলোচনা। সায়েন্সসিটির সেই ওয়ার্কশপেও দেখা গেছে কলকাতাকে হুমড়ি খেয়ে পড়তে। সরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ মৌলনা আবুল কালাম আজাদ ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজিতেও ছাত্রদের উদ্যোগে হয়ে গেল স্টার্টআপ আন্ত্রেপ্রেনিওরদের ফেস্ট, Konstruct’16।

এবার বিপি পোদ্দার ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে হবে কোডারদের মহারণ। ২১ মে। HackOn 101-এর মঞ্চে ৮ ঘণ্টা টানা লড়বে কলকাতার কোডাররা। PHP, JavaScript নিয়ে কাজ করবে। তৈরি করার চেষ্টা করবে ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন। মোবাইল অ্যাপস। অ্যান্ড্রয়েড এবং আই.ওএস অ্যাপ। জিতলে নগদ দশ হাজার টাকা। পেইড ইন্টার্নশিপের সুযোগ। আরও নানান মজাদার পুরস্কার। ভাবছেন তো নাম দিলে হয় কিনা। কোডিং জানলেই যেকোনও ছাত্রছাত্রী নাম দিতে পারবেন এই HackOn 101-এ। খুব বেশি হলে চার জনের একটি টিম তৈরি করে ভিড়ে গেলেই হল। তারপর টানা ৮ ঘণ্টা আপনার। ফেসবুকে খুঁজে পেতে পারেন ওঁদের হদিস। 

Related Stories