ঐতিহ্যের আঙিনায় জীবনের জয়গান করবে Dharma Endeavours

0

পর্যটন নিয়ে অনেক রকম ব্যবসা হয়। কিন্তু সামাজিক কাজ খুব একটা চোখে পড়ে না। এবছর কলকাতা আইআইএম এবং টাটা সোশ্যাল আন্ত্রেপ্রাইজ চ্যালেঞ্জের ময়দানে দেখা হল একটি সংস্থার সঙ্গে। কর্ণাটকের স্টার্টআপ। নাম ধর্ম এন্ডিভিয়ার্স।মূলত হেরিটেজ সাইট গুলিই এদের কাজের বিষয়। এরা কাজ করছে কর্ণাটকের হাম্পিতে। এখানে পাঁচ বছর ধরে টানা কাজ চলবে। তৈরি করা হবে একটি বিজ্ঞান সম্মত সামাজিক ইনফ্রাস্ট্রাকচার। এই এলাকার মানুষের জন্যে। পর্যটকদের পরিষেবা দিয়ে আয়ের সুযোগ থেকে শুরু করে এই অঞ্চলের মানুষের উন্নয়ন সবই দেখবে ধর্ম। সংস্থার কর্তারা বললেন, হেরিটেজ সাইটগুলি যে এলাকায় অবস্থিত- সেখানকার বাসিন্দাদের উন্নয়নের দিক তো আছেই, পাশাপাশি অর্থনৈতিক বিকাশও একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক। যেমন, হাম্পিতে পর্যটকদের যাঁরা পুরাতাত্ত্বিক নিদর্শনগুলি ঘুরিয়ে দেখাবেন, পর্যটকদের বিবৃত করবেন স্থানীয় ইতিহাস - স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে থেকেই তাঁদের বাছা হবে। এই সংস্থার অধীনেই কর্মী হিসাবে তাঁরা কাজ করতে পারবেন বলে জানা গিয়েছে।

ধর্ম এন্ডিভিয়ার্সের তরফে আরও জানানো হয়েছে, হাম্পিতে গড়ে তোলা হবে একটি আধুনিক হাবও। সেটি নগদ আয়ে সহায়তা করবে। এই অঞ্চলটি ছাড়াও ভবিষ্যতে আরও বেশ কয়েকটি পুরাতাত্ত্বিক এলাকায় কাজ শুরু হতে চলেছে। সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, ২০১৭ সালের কোনও একসময় থেকেই হাম্পিতে পর্যটকদের জন্যে কাস্টমাইজড ট্যুরের ব্যবস্থা করা হবে। ইদানীং এখানকার খাদিরামপুরা গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দাদের জীবন ও জীবিকার উন্নয়নের কাজে হাত দিয়েছে ধর্ম। সংস্থার তরফে জানা গিয়েছে, খাদিরামপুরায় তাঁদের উদ্যোগে খোলা হচ্ছে স্কুল। সেখানে পঠনপাঠনের সুযোগ পাবে ৩০০ ছাত্রছাত্রী। পাশাপাশি, হোম-স্টে-এর ক্ষেত্রেও নেওয়া হয়েছে উদ্যোগ। সেইসঙ্গে স্থানীয় কৃষিজীবীদের উন্নয়নেও কাজ চালানো হচ্ছে।