স্ন্যাপডিলের নতুন সংযোজন-স্ন্যাপট্রেন্ডস

0

স্ন্যাপডিল নিয়ে এল ফ্যাশনের অভিনব ফোরকাস্টটিং সার্ভিস স্ন্যাপট্রেন্ডস। ফ্যাশন ও ডিজাইনিং এর ক্ষেত্রে স্ন্যাপডিলের পার্টনার এবং বিক্রেতাদের জন্য স্ন্যাপট্রেন্ডস এক দারুন গাইড। বড় ই কমার্স কোম্পানিগুলোর মধ্যে স্ন্যাপডিলই প্রথম যাঁরা এই রকম ফোরকাস্টটিং সার্ভিস খুলল। এখানে ভারতীয় ও পশ্চিমী, দুই ধরণের পোশাকের বিভাগই থাকবে। স্ন্যাপট্রেন্ডস ২০১৫ সালের উৎসবের মরশুমে প্রথম ফোরকাস্ট শুরু করেছে।

প্রত্যেক শীতে আপনার সোয়েটার অথবা কার্ডিগান পরতে নাই ইচ্ছা করতে পারে।স্ন্যাপডিলের ফ্যাশন ডিজাইনার প্যানেল শুধু আপনার জন্য অনেক চিন্তা ভাবনা আর গবেষণা করে, বাজারে নিয়ে আসছে নিত্যনতুন গরম পোশাকের বিপুল সম্ভার। পরের বছর যখন আপনি আকাশে বাতাসে শুনতে পাবেন "বসন্ত এসে গেছে" ঠিক তখনি স্ন্যাপট্রেন্ডসের ভাঁড়ারে আপনার জন্য থাকবে বসন্ত ও গ্রীষ্মে পরার আরামদায়ক ট্রেন্ডি পোশাক।

স্ন্যাপট্রেন্ডসের ফলে ছোটো এবং মাঝারি মানের নির্মাতারা বাণিজ্যিক ভাবে সফল ও ট্রেন্ডি পোশাক বানানোর আগাম ধারণা পাবেন।

মোবাইল আর ইলেক্ট্রনিক্সের পর জামাকাপড় ই কমার্স কোম্পানীগুলিকে সবচেয়ে বেশি ব্যবসা দেয়। বেশির ভাগ ব্যবসায়ী পুরোনো এবং ভুল ধারণা নিয়ে ব্যবসায় লাভের মুখ দেখেন না। চিন্তায় আধুনিকতা প্রয়োজন। স্ন্যাপট্রেন্ডস একটি অত্যন্ত স্মার্ট প্রয়াস। স্ন্যাপট্রেন্ডসের মারফত নতুন স্টাইল নিয়ে ব্যবসায়ীরা স্বচ্ছ ধারণা পাবেন।

ফ্যাশন ট্রেন্ড প্রতিদিন পাল্টাচ্ছে। স্ন্যাপডিলের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট বিশাল চাড্ডা জানালেন, যাঁরা পোশাক বানান তাঁরা বাজারের দ্রুত পরিবর্তন ও চাহিদার সঙ্গে তাল রাখতে পারবেন। ক্রেতার মনের ভেতর এবার উঁকি দিতে পারবেন। ব্যবসায়ীরা ন্যায্য দামে ভাল মানের পোশাক দিতে পারবেন কাস্টমারকে। 

ফ্লিপকার্ট এবং স্ন্যাপডিল দু দলই নতুন নতুন ব্যবসানীতি নিয়ে বাজারে হাজির। বিক্রেতাকে সবরকম সাহায্য করতে তাঁরা রাজি। ফ্লিপকার্ট তাদের বিজ্ঞাপন ও প্রচারে আরও মনোযোগী হয়েছে। অনেক জায়গায় পিক আপ স্টোর খুলছে। ক্রেতা যদি প্রোডাক্ট ডেলিভারির সময় বাড়ি নাও থাকেন,পরে তিনি নিকটবর্তী পিক আপ স্টোর থেকে তাঁর অর্ডারের জিনিষ সংগ্রহ করতে পারেন।

গত বছর অগষ্টে Soft Bank এর কাছ থেকে বিনিয়োগ নিয়ে কিছু কোম্পানী Capital Assist নামক সংস্থা খুলেছে। ১৫০ জন বিক্রেতাকে Capital Assist প্রায় ৫০ কোটি টাকা পুঁজি জোগাড় করতে সাহায্য করেছে।

এই প্ল্যাটফর্ম বিবিধ উপায়ে ব্যবসায়ীকে সাহায্য করছে। এই মুহূর্তের জনপ্রিয় স্টাইল নিয়ে ধারণা দিচ্ছে। তাছাড়াও পোশাকে কোন ফেবরিক ব্যবহার করলে ভালো হয়, রঙের বৈচিত্র্য কিংবা নতুন ধরণের প্রিন্টের আইডিয়াও দিচ্ছে। স্ন্যাপডিলে অনেক দক্ষ ও অভিজ্ঞ ফ্যাশন ডিজাইনার আছেন। তাঁরা প্রত্যেক মরশুমের জন্য আলাদা ধরণের পোশাক ডিজাইন করছেন। এই বছর সেপ্টেম্বরে স্ন্যাপডিল তার বিক্রেতাদের জন্য SD Advisor Programme করেছে। প্রায় দু লাখ বিক্রেতা এই প্রোগ্রাম থেকে উপকৃত। অন্যান্য ই কমার্স কোম্পানীগুলিও এবার ফোরকাস্টিং সার্ভিস চালু করতে আগ্রহ দেখাচ্ছে।