সামাজিক উদ্যোগে কলকাতা খুব বেশি পিছিয়ে নেই

টিসেক এর প্রতিযোগিতায় সেরা বাছাইয়ে উঠে এসেছে কলকাতার উদ্যোগ আরোগ্য মেডটেক। তালিকায় উজ্জ্বল আরো দুটি কলকাতার সংস্থা। বেঙ্গালুরুরও তিনটি সংস্থা আছে সেরা দশে। 

0

এই নিয়ে পঞ্চম বছর। কলকাতা আইআইএম-এর সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে টাটা গোষ্ঠী সামাজিক উদ্যোগগুলিকে উৎসাহিত করতে আয়োজন করেছিল টি সেক এর। Tata Social Enterprise Challenge (TSEC)। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ৬০০ টি সামাজিক উদ্যোগ এই প্রতিযোগিতায় রেজিস্ট্রেশন করে। ২১৪ টি স্টার্টআপ প্রতিযোগিতার মূল পর্বে জায়গা পায়। সমাজে দীর্ঘস্থায়ী প্রভাব তৈরি করার লক্ষ্যে এই ধরণের স্টার্টআপ সংস্থাগুলি কাজ করছে। এই ২১৪টির মধ্যে মাত্র ২০টিকে ফাইনাল পর্বে বাছাই করা হয়েছিল। তার মধ্যে প্রায় চল্লিশ শতাংশই ছিল পূর্বাঞ্চলের স্টার্টআপ। এই প্রতিযোগিতায় প্ৰথম স্থানাধিকারী বেঙ্গালুরুর স্টার্টআপ সংস্থা পেন্টাভ্যালেন্ট বায়ো সায়েন্সেস প্রাইভেট লিমিটেড। দ্বিতীয় কলকাতার সংস্থা আরোগ্য মেডটেক। এবং তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে মুম্বাইয়ের স্টার্টআপ বম্বে হেম্প কোম্পানি প্রাইভেট লিমিটেড। যথাক্রমে আড়াইলাখ, দুলাখ এবং দেড় লাখ টাকার নগদ পুরস্কার দেওয়া হয়েছে এই সংস্থাগুলিকে।

টাটা গোষ্ঠীর কর্তা অতুল আগরওয়াল এবং আইআইএম কলকাতা ইনোভেশন পার্কের সিইও শুভ্রাংশু সান্যাল জানান, শীর্ষে থাকা কুড়িটি সংস্থাই পাচ্ছে মেন্টরিং সাপোর্ট। ফান্ডিং পাওয়ার সুযোগ। সামাজিক ক্ষেত্রে লাভ দায়ক সংস্থায় যে সব বিনিয়োগকারী লগ্নি করে তাদের সঙ্গে প্রাথমিক যোগাযোগ তৈরি করে দেওয়া হবে। আইআইএম কলকাতায় ইনকিউবেশন দেওয়া হবে। সেমিফাইনালে যারা পৌঁছেছে তারা সকলেই কাজের সূত্রে যাতায়াতের খরচ পাবে। সেরা দশের তালিকায় বাকি সাতটি সংস্থার মধ্যে রয়েছে কলকাতার ১)ONganic Foods এবং ২) ClassIQ Educational Foundation নামের দুটি সংস্থা। এছাড়া বেঙ্গালুরুর Scidogma Research এবং Lumisoft Technologies Pvt. Ltd এছাড়া আছে পুনের Genrich Membranes Pvt. Ltd, আহমেদাবাদের সংস্থা Aavishkar আর আহমেদাবাদের Saathi Eco Innovations Pvt. Ltd নামের একটি সংস্থা।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আইআইএম কলকাতার ডিরেক্টর প্রফেসর অশোক ব্যানার্জি, টাটা গোষ্ঠীর কর্তা হরিষ ভাট। এছাড়া আলোচনায় অংশ নেন দেশের একগুচ্ছ সেরা সামাজিক উদ্যোগপতি। তালিকায় রয়েছেন ডেলি ডাম্পের কর্ণধার, পূণম বির কস্তূরী, আইকিওর সংস্থার সিইও সুজয় সাঁতরা প্রমুখ।