ধনীদেশের জগত সভায় ষষ্ঠ স্থানে ভারতবাসী

1

বাজার চাঙ্গা। তরতর করে ৩৫ হাজারের মাইলস্টোনও পেরিয়ে গিয়েছে ভারতের শেয়ার বাজার। শিল্প বৃদ্ধির হার ঝিমিয়ে পড়েছে ঠিকই কিন্তু সামলে নিতে পারবে এই মুক্ত অর্থনীতি। অন্তত এমনটাই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। আর্থিক সমীক্ষার রিপোর্ট কার্ড বলছে আগামী বছরে সাড়ে সাত শতাংশের বেশি হবে। 

এরই মধ্যে প্রকাশিত হয়েছে ‘নিউ ওয়ার্ল্ড ওয়েল্থ’-এর সমীক্ষা। সেই সমীক্ষা বলছে ভারত সম্পদের হিসেবে ষষ্ঠ স্থানে আছে। ফলে গরিব দেশের তকমা গায়ে লাগানো আর সাজে না ভারতের। এই সমীক্ষায় দেশগুলির নাগরিকদের মালিকানায় যে পরিমাণ স্থাবর এবং অস্থাবর সম্পত্তি আছে তার সামগ্রিক যোগফলকেই মোট সম্পদ হিসেবে ধরা হয়েছে। ভারত এই তকমা অর্জন করেছে তার নাগরিকদের বাড়তে থাকা সম্পদের জন্যে। রাষ্ট্রের তহবিল এখানে বিচার্যই নয়। রিপোর্ট কার্ড বলছে সব থেকে ধনী দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তারপর চিন। জাপান। ব্রিটেন। জার্মানি এবং ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে ভারত। তার পরে রয়েছে ক্রমানুসারে ফ্রান্স, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া এবং ইটালি। রিপোর্ট আরও বলছে গত বছর ভারতের সম্পদ সৃষ্টির ক্ষেত্রে সব থেকে গুরুত্ব পূর্ণ ছিল। এবং সব থেকে চাঙ্গা ছিল ভারতের বাজার। ২৫ শতাংশ সম্পদ তৈরি হয়েছে এই ২০১৭ সালেই। এবং তার ফলেই ষষ্ঠ স্থানে উঠে আসতে পেরেছে ভারত। বলা হচ্ছে গত দশ বছরের হিসেব অনুযায়ী ভারতের সম্পদ বৃদ্ধির হার ১৬০ শতাংশ। ২০০৭ সালে ভারতের মোট সম্পদের পরিমাণ ছিল তিন লক্ষ ষোলো হাজার পাঁচশ কোটি ডলার। সেখানে ২০১৭ সালে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে আট লক্ষ ২৩ হাজার কোটি মার্কিন ডলারে। ২০১৬ সালে দেশের সামগ্রিক সম্পদের পরিমাণ ছিল ৬ লক্ষ আটান্ন হাজার চারশো কোটি মার্কিন ডলার। সেই পরিমাণটাই ২৫ শতাংশ বেড়েছে। যদিও অক্সফ্যামের রিপোর্ট বলছে দেশের ধনী আর দরিদ্রের মধ্যে ফারাকটা এখন সব থেকে বেশি। বৈপরীত্য এতটাই যে দেশের মাত্র এক শতাংশ মানুষের কাছে ৭৩ শতাংশ সম্পদ কুক্ষিগত হয়ে রয়েছে। এবং উল্লেখ্য ভারতের সম্পদ বৃদ্ধির হারটা গত বছরই ছিল সব থেকে বেশি। একই ভাবে ২০১৭ সালটা ভালো কেটেছে চিন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জাপান এবং অস্ট্রেলিয়ার জন্যেও। চিনের সম্পদ বেড়েছে ২২ শতাংশ হারে। যেখানে বিশ্বের সামগ্রিক সম্পদ বৃদ্ধির হার ১২ শতাংশ।

এক বার দেখে নিন সম্পদের নিরিখে প্রথম দশটি দেশের তালিকা।

প্রথম আমেরিকা। মোট সম্পদ ৬৪ লক্ষ ৫৮ হাজার ৪০০ কোটি মার্কিন ডলার।
দ্বিতীয় চিন। মোট সম্পদ ২৪ লক্ষ ৮০ হাজার ৩০০ কোটি ডলার।
তৃতীয় জাপান। মোট সম্পদ ১৯ লক্ষ ৫২ হাজার ২০০ কোটি ডলার নিয়ে
চতুর্থ ব্রিটেন। মোট সম্পদ ৯ লক্ষ ৯১ হাজার ৯০০ কোটি ডলার। 
পঞ্চম জার্মানি। মোট সম্পদ ৯ লক্ষ ৬৬ হাজার কোটি ডলার।
ষষ্ঠ ভারত। মোট সম্পদ ৮ লক্ষ ২৩ হাজার কোটি মার্কিন ডলার।
সপ্তম ফ্রান্স। মোট সম্পদ ৬ লক্ষ ৬৪ হাজার ৯০০ কোটি মার্কিন ডলার।
অষ্টম কানাডা। মোট সম্পদ ৬ লক্ষ ৩৯ হাজার ৩০০ কোটি মার্কিন ডলার।
নবম অস্ট্রেলিয়া। মোট সম্পদ ৬ লক্ষ ১৪ হাজার ২০০ কোটি মার্কিন ডলার 
দশম ইতালি। মোট সম্পদ ৪ লক্ষ ২৭ হাজার ৬০০ কোটি মার্কিন ডলার।