Kudos কঙ্কণা... তোমাকে অভিবাদন...

2

কলকাতার মেয়ে কঙ্কণা চক্রবর্তী। এইমুহূর্তে একটু কান পাতলেই সিনেমা দুনিয়ায় শুনতে পাবেন তাঁর নাম। বাংলা আর বাঙালী তাঁকে নিয়ে গর্বিত। অমিতাভ বচ্চন থেকে শুরু করে ফিল্ম ফ্র্যাটারনিটির তাবড় ব্যক্তিরা মুগ্ধ তাঁর কাজে। হলিউডেও শিরোনামে তিনি। তাঁর ডকুমেন্টারি ফিল্ম "Women Prayed and Preyed upon" শুধু নির্বাচিত, প্রদর্শিত আর প্রশংসিতই হয়নি, জিতে নিয়েছে সর্বোচ্চ সম্মান HOLLYWOOD INTERNATIONAL INDEPENDENT DOCUMENTARY AWARDS। এবছর অগাস্টে ফিল্মটি দেখানো হয়েছে হলিউডের ইতিহাসখ্যাত Raleigh স্টুডিওতে। ফেস্টিভ্যালে BEST WOMEN FILMMAKER অ্যাওয়ার্ড জিতে নিয়েছেন কঙ্কণা চক্রবর্তী।

কেবল আন্তর্জাতিক স্তরেই নয়, দেশেও MUMBAI WOMEN's INTERNATIONAL FILM FESTIVAL আর অন্যান্য জাতীয় ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে BEST DOCUMENTARY FILM অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে তাঁর সিনেমা। প্রশংসিত আর বহুচর্চিত এই সিনেমাটি ২০১৩ সালে মধ্যপ্রদেশের LAKE CITY INTERNATIONAL SHORT FILM FESTIVAL-এর ওপেনিং ফিল্ম ছিল।

২০১৩ সালে সিনেমাটি ভারতেই বানানো হয়েছে। মহিলাদের ওপর হওয়া অত্যাচার আর হিংসা নিয়ে নির্মিত একটি আধঘণ্টার ডকুড্রামা। সিনেমাটির মূল হাইলাইট হল পুরুষরা যে নারীকে দেবীরূপে পুজো করে তাঁকেই হিংসার শিকার বানায়। দেশের বিভিন্ন স্থানে সিনেমাটির শুটিং হয়েছে। অমিতাভ বচ্চন, শ্যাম বেনেগল, ঊষা উথ্থুপ, সুরেখা শিকরি, লোপামুদ্রা মিত্র, জয় সরকার এমন আরও অনেক নামীদামী শিল্পীদের দেখা গেছে সিনেমাটিতে। লক্ষ লক্ষ অত্যাচারিত নারীর কণ্ঠস্বর হয়ে উঠেছে বাংলার এক তরুণী চলচ্চিত্র নির্মাতা। সারা দেশ নড়েচড়ে বসেছে তাঁর দৃপ্ত ভঙ্গিমায়, আপ্লুত তাঁর অপূর্ব শিল্পকর্মে। দেবীপক্ষের সূচনায় এর থেকে বড় পুরষ্কার আর কি হতে পারে?

কঙ্কণার কাছে আরও আনন্দের হল অ্যাওয়ার্ড পাবার পরেই অমিতাভ বচ্চন তাঁকে অভিনন্দন জানিয়ে একটি মেল পাঠিয়েছেন। মেলে তিনি লিখেছেন: “Congratulations! Wonderful to hear and see your success. Its your determination and your confidence...Love”.

কলকাতার এই উদীয়মান নক্ষত্রের জন্য আরও অনেক কিছু অপেক্ষা করে আছে। নভেম্বরে কঙ্কণা দেশে ফিরলেই কলকাতার একটি অন্যতম প্রধান বিজনেস চেম্বার তাঁকে সম্মানিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। MCC Chamber of Commerce-এর Ladies Forum থেকেও তাঁকে সম্মানিত করা হবে। সংস্থার এডিজি শুভাশিস রায় একথা জানিয়েছেন।

২০১৬-র Cannes Short Film Corner-এ তাঁর শর্ট-ফিল্ম "Coming Nowhere" নির্বাচিত হয়েছে। এখানে তিনি "Cossette" চরিত্রটি করেছেন। এক লড়াকু মায়ের গল্প। ড্রাগ আর অ্যালকোহলের নেশার সঙ্গে দীর্ঘ যুদ্ধশেষে সে ঘরে ফেরে। দেখা পেতে চায় মেয়ের। কিন্তু ওর রক্ষণশীল প্রাক্তন স্বামী দূরে ঠেলে দেয় ওকে।

NEW YORK FILM ACADEMY থেকে কঙ্কণা ফিল্মে অভিনয় নিয়ে MFA পাশ করেছেন। সম্প্রতি তাঁর স্নাতক-স্তরের ফিল্মটিও INDIAN CINE FILM FESTIVAL-এ নির্বাচিত হয়েছে। মুম্বাইতে Singularity প্রদর্শিত হয়েছে এবং কঙ্কণা স্টুডেন্ট ফিল্ম ক্যাটাগরিতে BEST ACTRESS অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন। সিনেমাটির বিষয় হল নিরাপত্তাহীনতা আমাদের জীবনে কি ধরনের 'কিন্তুর' জন্ম দেয় যার চাপে আমরা মুহূর্তগুলোকে নিয়ে বাঁচতে ভুলে যাই। আমরা ভয় পেতে শুরু করি। গল্পটা ক্যাথিকে নিয়ে। ক্যাথি সিনেমাটির কেন্দ্রীয় চরিত্র। এটি তাঁর জীবনের নিরাপত্তাহীনতা, কিন্তু আর ভয়ের গল্প। শেষে তাঁর ভয়কে জয় করার কাহিনীই বলে Singularity।