গ্যাসের দাম দিতে পারবেন অনলাইন ওয়ালেট থেকে

0

এলপিজি সিলিন্ডার পরিষেবা নেন এমন গ্রাহকদের জন্যে সুখবর। আর কিছুদিনের ভিতর সারা দেশেই এলপিজি সিলিন্ডারের গ্রাহকরা সিলিন্ডারের মূল্য বাবদ টাকা জমা করতে পারবেন মোবাইল ওয়ালেটের মাধ্যমে। মোবাইল ওয়ালেট সংস্থা ফ্রি-চার্জের সঙ্গে ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন বা আইওসিএল-এর যৌথ উদ্যোগে এই নতুন ব্যবস্থা চালু করা হচ্ছে।

ইতিমধ্যে দেশের কয়েকটি শহরে পাইলট প্রজেক্টের কাজ করে ভালো ফল মিলেছে। কলকাতা ছাড়া ব্যাঙ্গালুরু, চণ্ডীগড় ও রায়পুরে পাইলট প্রজেক্টের কাজ হয়েছে। যেভাবে গোটা বিষয়টি এগোচ্ছে, তাতে আগামী বছরের মার্চের ভিতর সারা দেশে ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনের গ্রাহকরা এই পরিষেবার আওতায় পড়বেন। এর ফলে তাঁরা সহজে গ্যাস সিলিন্ডারের দাম চোকাতে পারবেন। হাতে নগদ না থাকলেও কোনও ক্ষতি নেই। এক্ষেত্রে দাম মেটানো যাতে ফ্রি-চার্জ ওয়ালেটের মাধ্যমে।

জানা গিয়েছে, নতুন এই ব্যবস্থাটি একশো শতাংশ গ্রাহক-বান্ধব। প্রথমত, একটি বোতাম টেপা মাত্র সিলিন্ডারের দাম চোকানো যাবে। অতি সহজভাবে কাজটি যেমন করা যাচ্ছে, সেইসঙ্গে সময়ও লাগছে বড়জোর ১০ সেকেন্ড। ইন্টারনেট সংযোগ না থাকলেও পরোয়া নেই।

ফ্রি-চার্জের সিইও গোবিন্দ রাজন বলেছেন, আইওসিএল-এর সঙ্গে যৌথভাবে ওয়ালেট পার্টনার হিসাবে কাজ করতে পেরে আমরা খুশি। এটা একটা নজির হিসাবে থাকবে। গ্রাহকদের নগদ দিয়ে দাম মেটানোর পরিবর্তে আমরা ই-ক্যাশ পরিষেবার সুযোগ দিচ্ছি। এতে তাঁরা আরও স্বস্তি পাবেন। তাছাড়া, গ্যাস সিলিন্ডারের দাম চোকানোর ক্ষেত্রে এই পরিষেবা গোটা‌ প্রক্রিয়াটিকে অত্যন্ত সহজ করে তুলবে। পাশাপাশি, এলপিজি এজেন্টরাও আরও স্বচ্ছভাবে কাজ করতে পারবেন বলে গোবিন্দ রাজন জানিয়েছেন।

এই ব্যবস্থা ভারত সরকারের ডিজিট্যাল ইন্ডিয়া গড়ার লক্ষ্যে আরও কয়েক পা অগ্রসর হওয়া বলে মনে করেন ফ্রি-চার্জের সিইও গোবিন্দ রাজন। তাছাড়াও রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নীতি অনুসারে টাকার আদানপ্রদানে প্রযুক্তি ব্যবহার করাটা এখন জরুরি। সে্ই লক্ষ্যেই বাস্তবায়িত হতে চলেছে বলে দাবি করেছে ফ্রি-চা্র্জ।