বিনিয়োগের জন্যে ৭ কোটি তুলে তৈরি ওরিগা

0

ওরিগা লিসিং-এ ৭ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে আহ! ভেঞ্চার, এবং ফাইভ হান্ড্রেড স্টার্টআপ। ফলে ভারতে একমাত্র লিজিং সংস্থা ওরিগা এখন তৈরি। লিজ নেওয়ার বা লিজ দেওয়ার ভালো বাংলা কি ইজারা দেওয়া বা নেওয়া। তবে বলা ভালো সম্পদের ইজারাই দেয় এই সংস্থা। স্টার্টআপ ইকোসিস্টেমে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে লিজিং সংস্থাগুলি। ভারতে এরকম লিজিং সংস্থা খুব বেশি নেই। ওরিগার দাবি তারাই প্রথম এবং একমাত্র। সম্প্রতি এই বিপূল অর্থের সংস্থান হওয়ায় বাজার ধরতে কোমর বেঁধে নামতে চলেছে ওরিগা। ক্লায়েন্টদের জন্যে ও.ই.এম বা ওরিজিনাল ইক্যুইপমেন্ট ম্যানুফেকচারার সংস্থায় বিনিয়োগ করে ক্লায়েন্টকে সেই সম্পদ ইজারা দেওয়ার কাজটাই করে ওরিগা। ফলে তাদের ক্লায়েন্টদের বিনিয়োগের টাকা জোগার করার প্রাথমিক চাপও কমে। ফলে তাদের গ্রাহকেরাও ধীরে সুস্থে লিজের টাকা শোধ করার সুযোগ পান। সংস্থার বক্তব্য সম্প্রতি যে ৭ কোটি টাকার ফান্ড তৈরি হল তা দিয়ে অ্যাসেট ছাড়াও দক্ষ কর্মী এবং প্রযুক্তি খাতে তা ব্যবহৃত হবে।

২০১৩-র মে মাসে শ্রীরঙ্গ তাম্বে ওরিগা লিসিং চালু করেন। প্রথমে স্বাস্থ্য পরিষেবা, জঞ্জাল সাফাই, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, বিকল্প শক্তি উৎপাদন ও পরিষেবা মূলক ব্যবসার মত উচ্চ বৃদ্ধি যুক্ত সংস্থার সম্পদ ইজারা দিয়ে কাজ শুরু করেন তাম্বে। সেই থেকে যাত্রা শুরু। তারপর থেকে ফিরে তাকায়নি ওরিগা। সফল ওরিগার কর্ণধার শ্রীরঙ্গ তাম্বে জানালেন, স্টার্টআপ সংস্থা গুলি যাতে প্রযুক্তির দিক থেকে কোনও ভাবেই পিছিয়ে না থাকে সেই কথা মাথায় রেখেই বিনিয়োগ করে তাঁর সংস্থা। আর তাই তাঁর স্বপ্ন অভিনবত্বের জন্য ওরিগা পৃথিবীর বৃহত্তম ফিনটেক লিসিং কোম্পানি হয়ে ওঠবে একদিন। আগামী তিন থেকে চার বছরের মধ্যে শুধু ভারতেই ব্যবসার পরিমাণ একশ মিলিয়ন ডলারে নিয়ে যেতে চান তাম্বে।

লগ্নী প্রসঙ্গে আহ!ভেঞ্চার এর প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও হর্ষদ লাহোটি বললেন, “ওরিগা লিসিং ভারতের প্রথম কোম্পানি গুলির মধ্যে একটি যারা উচ্চ বৃদ্ধিযুক্ত আন-ব্যাঙ্কড এবং আন্ডার ব্যাঙ্কড SME গুলি কে অ্যাসেট লিসিং পরিষেবা দিয়ে থাকে। আমরা মনে করি ওরিগার প্রতিটি পদক্ষেপে মিলিয়ন ডলার কামানোর সম্ভাবনা রাখে। শুধু তাই নয় সংস্থার বৃদ্ধির হার এই থাকলে বছর দশকের মধ্যেই ওরিগা নিজেই একটি ব্যাঙ্কে পরিণত হয়ে উঠবে।”

ওরিগার লগ্নীকারী এবং বোর্ড মেম্বার উল্লাস দেশপান্ডের মতে, ইউরোপের SME লগ্নীর ৪৬ শতাংশ এবং আমেরিকার SME লগ্নীর ৭২ শতাংশ আসে আসেট লিসিং থেকে। ভারতে এর পরিমাণ এক শতাংশেরও কম। “এটি একটি উদ্ভাবনামূলক ব্যবসায়িক মডেল যা মধ্যম মানের উদ্যোগপতিদের বহু প্রতীক্ষিত পুঁজি লাভে বিশেষ ভাবে সাহায্য করতে পারে।”

সাম্প্রতিক বছর গুলিতে ফিনটেক সংস্থাগুলি দুনিয়া জুড়ে গ্রোথ ইঞ্জিনকে ঠেলছে। এটাই এখন ট্রেন্ড। অ্যাকসেঞ্চার এর সাম্প্রতিক রিপোর্ট অনুসারে, সামগ্রিকভাবে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল বিনিয়োগের ৬৩ শতাংশ বৃদ্ধির তুলনায় ২০১৪ সালে ফিনটেক সংস্থাগুলিতে বিনিয়োগের পরিমাণ ২০১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০১৪ সালে ফিনটেক ভেঞ্চারে বিশ্বব্যাপী বিনিয়োগের পরিমাণ ২০১৩ সালের ৪.০৫ বিলিয়ন ডলার থেকে তিন গুণ বেড়ে হয়েছে ১২.২১ বিলিয়ন ডলার। বিপুল তথ্য বিশ্লেষণ এবং প্রেডিক্টিভ মডেলিং, গতিশীলতা, অর্থ প্রদান, ঝুঁকি পরিচালন ও নিরাপত্তার মত ক্ষেত্রগুলিতে ফিনটেক সংস্থাগুলির সাফল্য অনস্বীকার্য। ওরিগা ভারতে এরকমই একটি সফল ফিনটেক সংস্থা যা ভারতের অর্থনীতিকে চাঙ্গা রাখার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ঘুঁটি হয়ে উঠতে এখন তৈরি।