দেশের অগ্রণী ৬ টি স্পোর্টস স্টার্টআপ

0

স্টার্ট আপদের বিনিয়োগ টানার পক্ষে এই সময়টা বেশ ভালোই। কয়েকটি স্পোর্টস স্টার্ট আপস এখন বেশ ভালো ব্যবসা করছে। এর কারণ ফিটনেস নিয়ে সাধারণ মানুষের আগ্রহ বেড়েছে। এখানে ভারতের কয়েকটি স্পোর্টস স্টার্ট আপ সম্পর্কে কিছু তথ্য জানানো হল –

SPORTS365

এরা কাজ শুরু করে্ছে ২০১২ সালে। অনলাইন এই ফোরামটির প্রতিষ্ঠাতা হলেন চন্দ্রশেখর রেড্ডি, আশুতোষ চৌধুরী এবং আফরোজ থান। সংস্থাটি ব্যাঙ্গালুরুর। খেলাধূলা ও ফিটনেসের জন্যে প্রয়োজনীয় সামগ্রী এরা বিক্রি করে থাকে। এই পোর্টালটি ছাড়াও ওঁরা আরও কয়েকটি পোর্টাল চালাচ্ছেন। সেগুলি হল টেনিস ক্লাব.ইন, রানিং ক্লাব.ইন, সাইক্লিং ক্লাব.ইন এবং ব্যাডিমিন্টন ক্লাব.ইন। সংশ্লিষ্ট খেলাগুলিতে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় এই পোর্টালগুলির মাধ্যমে। সম্প্রতি প্রতি মাসে ৪০ হাজার গ্রাহক পোর্টালগুলি দেখে থাকেন বলে জানা গিয়েছে। ক্রিকেটার যুবরাজ সিং এবং অভিনে্ত্রী লারা দত্ত এই সংস্থার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর।

goSporto

২০১৫ সালে দি ফ্রি হিট টেকনোলজিস প্রাইভেট লিমিটেড তৈরি হয়। প্রতিষ্ঠাতা বিবেক কুমার, রাজেন্দ্র বনশল এবং সুমিত পোখরিয়াল। সংস্থার সদর দফতর গুরগাঁওতে। এই সংস্থার অ্যাঞ্জেল ইনভেস্টর নবীন গুপ্তা। ২০১৬ সালে সংস্থাটি সিড ফান্ডিং করেছে ৩০ হাজার ডলার। পোর্টালটিতে ১০০ ধরনের গেম খেলার ব্যবস্থা আছে। গ্রাহক সংখ্যা ৩০০০।

Sports Village

এই সংস্থাটি চালু হয়েছে ২০০৩ সালে। এটি এদেশের অন্যতম একটি পুরনো স্টার্ট আপ যারা প্রথম থেকেই খেলাধূলা নিয়ে কাজ করছে। এদের সদর দফতর ব্যাঙ্গালুরুতে্। জিতেন্দ্র যোশী ও সৌমিল মজুমদার এই স্টার্ট আপটির প্রতিষ্ঠাতা। এদের কাজের ক্ষেত্র হল স্পোর্টস ম্যানেজমে্ন্ট। খেলাধূলা সংক্রান্ত শিক্ষামূলক নানান কাজও করে থাকে। এছাড়া, খেলাধূলার ক্ষেত্রে পরিকাঠামো ও মার্কেটিংয়ের কাজ করে থাকে। ভারতের ৪০০টি স্কুলে খেলাধূলা সংক্রান্ত বিষয়ে শিক্ষামূলক প্রশিক্ষণ দিচ্ছে এই সংস্থা।

Play Your Sport

এটি দিল্লির সংস্থা। দুইজন প্রতিষ্ঠাতার নাম হল সুপ্রিয়া ম্যামগেইন এবং বরুণ কাপুর। হায়দরাবাদের একটি অ্যাঞ্জেল ইনভেস্টর সংস্থার মাধ্যমে ২০১৫ সালে এরা ফান্ডিং করেছে ১৬,০০০ ডলার। এদে্র কাজ বসবাসের কাছাকাছি এলা্কায় ফিটনেস সেন্টারগুলির সন্ধান দেওয়া। কিশোর-কিশোরী থেকে শুরু করে প্রবীণ নাগরিকদের জন্যে এই সংস্থা ফিটনেস সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। সম্প্রতি সংস্থাটি মুম্বইতেও কাজ শুরু করেছে।

OyePlay

অমর পাল সিং সংস্থাটি প্রতিষ্ঠা করেছেন ২০১৫ সালে। এটি ব্যাঙ্গালুরুর সংস্থা। অমর ছাড়াও সংস্থার অন্য আর একজন প্রতিষ্ঠাতা হলেন হিতেশ জৈন। এই সংস্থায় বিনিয়োগকারী সংস্থার নাম জাইকেন ম্যানেজমেন্ট সার্ভিসেস। ইতিমধ্যে এদের গ্রাহক সাত হাজার ছাড়িয়েছে। এটি এমন একটি ম‌ঞ্চ যেখান থেকে গ্রাহক মনের মতো একটি বা একাধিক স্পোর্টস কোর্ট বেছে নিতে পারবেন। শীঘ্রই চেন্নাই ও হায়দরাবাদে কাজ শুরু করতে চলেছেন এরা।

BookMySports

২০১২ সালে এই সংস্থার জন্ম। বুক মাইস্পোর্টসে মিলবে নানান ধরনের সুযোগ। তার ভিতর রয়েছে টুর্নামে্ন্টের পরিকল্পনা করা, প্রশিক্ষকের সন্ধান দেওয়া কিংবা এই পোর্টালটি দেখে শিখে ফেলা যাবে যে কোনও খেলা। এদের বর্তমান গ্রাহক তালিকায় রয়েছে ব্রেইন সিড স্পোর্টসটেইন প্রাইভেট লিমিটেড, অ্যামওয়ে, টিসিএস, খৈতান, লুথরা অ্যান্ড লুথরা ইত্যাদি প্রথম সারির সংস্থা। এই সংস্থা ২০১৫ সালে ১ কোটি টাকার কাছাকাছি ফান্ডিং করেছে। পরবর্তী ফান্ডিংয়ের জন্যে প্রস্তুতি চালানো হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।