রূপচর্চায় সাড়া ফেলেছে বিগ স্টাইলিস্ট

0

শুধু একটা ফোন। আপনার বাড়ির দরজায় পৌঁছে যাচ্ছে গাড়ি কিংবা পোশাকের মাপ নিতে আসছে টেলারিংয়ের লোক। চাহিদামতো ঘরে-ঘরে পৌঁছে যাচ্ছে মুদির দোকানের জিনিস। অন-ডিমান্ড এই কনসেপ্টই এখন দাপিয়ে বেড়াচ্ছে ভারতের মেট্রো শহরগুলিতে। সেই ঢেউ দোলা দিয়েছে রূপচর্চার দুনিয়াতেও। Grofers, DriveU, Urbantailor-এর দেখানো পথেই বিগ স্টাইলিস্ট (BigStylist) গড়ে তুলেছেন রিচা শর্মা। সহজ কথায় বললে বিগস্টাইলিস্ট হল বিউটি প্রফেশন্যালসদের অন-ডিমান্ড মার্কেটপ্লেস। যেখান থেকে চাইলেই আপনি পেতে পারেন সার্টিফায়েড বিউটি প্রফেশন্যালস।

রূপচর্চার দুনিয়ায় বিগস্টাইলিস্ট

রূপচর্চা মানেই ব্যয়বহুল একটা ব্যাপার। সবজায়গায় ভালো পরিষেবাও পাওয়া যায় না। ভারতে এখনও পর্যন্ত এটাই চেনা ছবি। কলেজ জীবনে নিজের অভিজ্ঞতায় তা আরও ভালো করেই বুঝেছিলেন রিচা শর্মা। খড়গপুর আইআইটি'র ছাত্রী ছিলেন রিচা। সেই এলাকায় ভালো মানের কোনও বিউটি পার্লার ছিল না। কেশচর্চা করতে তাদের যেতে হত কলকাতায়। গ্র্যাজুয়েশনের পরে কর্মসূত্রে বেশ কয়েকটি শহরে গিয়ে রিচা সেখানেও দেখেন একই সমস্যা। রিচা বুঝেছিলেন কোনও এলাকায় নির্ভরযোগ্য ও প্রশিক্ষিত রূপ-বিশারদ না থাকাটা মেয়েদের কাছে কতটা সমস্যার। তখন থেকেই ভাবনাটা রিচার মাথায় গেঁথে যায়। Capital One ও Oliver Wyman-এ বিজনেস অ্যানালিস্ট ও কনসালট্যান্ট হিসেবে কাজ করার সময়ে ভাবনাটা আরও দানা বাঁধে। একসময় চূড়ান্ত সিদ্ধান্তটা নিয়েই ফেলেন। ছাড়লেন চাকরিও।

বিগ স্টাইলিস্ট রিচার ব্রেনচাইল্ড হলেও এর আরও দু'জন প্রতিষ্ঠাতা সদস্য রয়েছেন। চিন্ময় শর্মা এবং অনুরাগ শ্রীবাস্তব। রিচা দেখেন রূপচর্চার মূল বিষয়টা। অপারেশনস ও টেকনোলজির দিকটা সামলান চিন্ময় ও অনুরাগ। বেঙ্গালুরু IIT ও IIM থেকে উঠে আসা চিন্ময়ের ৪ বছর কাজের অভিজ্ঞতা রয়েছে Bain and Company-তে। অন্যদিকে হায়দরাবাদ ভিত্তিক একটি ম্যানেজমেন্ট স্টার্টআপের (ADG) সঙ্গে যুক্ত ছিলেন অনুরাগ। রূপচর্চার এই স্টার্টআপে নামার আগে গ্রাউন্ড লেভেলে বিষয়টা নিয়ে রিসার্চ চালান তিনজন। ভালো দিক, খারাপ দিক, সম্ভাবনা, দক্ষ মানবসম্পদ সব কিছুই খতিয়ে দেখা হয়। এরপরই কাজ শুরু করে বিগ স্টাইলিস্ট।চিন্ময়ের কথায়,"বিগ স্টাইলিস্ট হল এমন একটা প্ল্যাটফর্ম যেখান থেকে বিউটি ইন্ডাস্ট্রির সেরা পরিষেবা মিলবে। আপনার সুবিধামতো সময়ে, আপনার বাড়িতে পৌঁছে যাবে বিশেষভাবে প্রশিক্ষিত বিউটিশিয়ানরা"।

রিচা শর্মা, চিন্ময় শর্মা এবং অনুরাগ শ্রীবাস্তব
রিচা শর্মা, চিন্ময় শর্মা এবং অনুরাগ শ্রীবাস্তব

কেমন চলছে বিগ স্টাইলিস্ট?

তিন প্রতিষ্ঠাতার সঞ্চিত অর্থ দিয়েই ২০১৫ সালের মে মাসে যাত্রা শুরু করে বিগ স্টাইলিস্ট। সময়ের হিসাবে খুব বেশিদিন না হলেও সাড়া ফেলে দিয়েছে এই স্টার্টআপ। প্রতি মাসে গ্রাহকের সংখ্যা কমবেশি একশো। আর প্রতিটি পরিষেবা থেকে মিলছে প্রায় ১২০০ টাকা। বিগ স্টাইলিস্টে কাজ দেওয়া হয় একমাত্র সার্টিফায়েড বিউটি প্রফেশন্যালসদেরই। এক্ষেত্রে কোনওরকম সমঝোতা করা হয় না। গ্রাহক সন্তুষ্টিকে কাজে লাগিয়ে গুডউইল তৈরি, এটাই মন্ত্র রিচাদের।

এই বাজারে প্রতিযোগিতা কেমন?

তেমন তীব্র না হলেও প্রতিযোগিতা অবশ্যই রয়েছে। তবে সেটা অনেকটাই শহরভিত্তিক।মুম্বই ভিত্তিক বিগ স্টাইলিস্টের এক্ষেত্রে মূল প্রতিযোগী বলা যেতে পারে Vanitycube, Bulbul বা আরও কয়েকটি সংস্থাকে। ভ্যানিটি কিউবের যেমন বেশ সুনাম রয়েছে। ন্যাশনাল ক্যাপিটাল রিজিয়নে (NCR) এই সংস্থা ৯০ মিনিটের মধ্যে আপনার দোরগোড়ায় পরিষেবা পৌঁছে দিতে প্রস্তুত।


ভারতে রূপচর্চার বাজার

একশ্রেণির ভারতীয় রূপচর্চাকে দৈনন্দিন জরুরি কাজ বলেই মনে করেন। তাই এর পিছনে খরচ করতে তারা (বিশেষত মহিলারা) পিছপা হন না। একটি সমীক্ষা অনুযায়ী, ভারতে মেট্রো শহরগুলিতে মহিলারা মাসে গড়ে দুই থেকে তিন হাজার টাকা সৌন্দর্যচর্চায় খরচ করে থাকেন। ভারতের মতো একটি বিশাল দেশে এই গড়পড়তা খরচ বিশ্লেষণ করলেই বোঝা যায় বাজার ঠিক কতটা বড়। বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, খুব কম করে হলেও ভারতে বিউটি সার্ভিসের বাজার ৪৮০ কোটি ডলার বা ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ২৮ হাজার কোটি টাকার। সেই বাজারও দ্রুত বাড়ছে।