২১ জুন আন্তর্জাতিক যোগা দিবস

0

সারা পৃথিবী জুরে ২০১৫-র ইন্টারন্যাশানাল যোগা দিবস উদযাপন ভীষণ সফল। দ্বিতীয়বারের জন্য এই অনুষ্ঠান পালন থেকে আমরা আর কয়েক সপ্তাহ দূরে। চলুন ছোট্ট করে একটু দেখে নিই কেমন ছিল গতবছরের এই যোগা দিবসের আনুষ্ঠানিক কর্মসূচী।

২০১৪ সালের ২৭শে সেপ্টেম্বর। ভারতের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভাষণ দিচ্ছিলেন United Nations General Assembly-র ঊনসত্তরতম সেশন এ। তিনি গোটা দুনিয়াকে একটি দিন ইন্টারন্যাশানাল যোগা দিবস হিসেবে পালনের আহ্বান জানান। ১১ই ডিসেম্বর ২০১৪, United Nations General Assembly-র ১৯৩ জন মেম্বার তাঁর প্রস্তাবে সম্মতি দেন। ১৭৭টি দেশ ২১শে জুন দিনটি “International Day of Yoga” হিসেবে পালনের এবং অনুষ্ঠান স্পনসর করতে অঙ্গীকারবদ্ধ হয়। United Nations General Assembly মানুষের সুস্বাস্থ্য বিষয়ে যোগার প্রাসঙ্গিকতা উপলব্ধি করতে পেরেছে। দৈনন্দিন জীবনের সর্বক্ষেত্রে যোগা একপ্রকার ঐকতান এনে দেয়। নিত্য যোগাভ্যাস আমাদের নিস্তার দিতে পারে আধুনিক জীবনশৈলীজনিত বহু রোগের সংক্রমণ আর প্রকোপ থেকে।

নয়া দিল্লির রাজপথে ২০১৫ সালের ২১শে জুন The Ministry of AYUSH অত্যন্ত সফলতার সঙ্গে আয়োজন করেছিল প্রথম International Day of Yoga (IDY)। নথিভুক্ত হয়েছে Guinness World Records এ। কারণ ৩৫,৯৮৫ জন প্রতিনিধি এক প্ল্যাটফর্মে অংশগ্রহণ করেছিল সেদিন। এটি ছিল 'Largest Yoga Practice'। এই যোগা অনুষ্ঠানে চুরাশিটি দেশের প্রতিনিধি যোগা দেখান। ভারত ছাড়াও, গোটা দুনিয়ার বিভিন্ন স্থানে এই দিনটি খুবই উৎসাহ আর উদ্দীপনা নিয়ে পালিত হয়। লাখ লাখ প্রতিনিধি অংশ নেন। যোগার উপকারিতার বার্তা তাঁরা ছড়িয়ে দিয়েছেন গোটা পৃথিবীতে।

যোগাভ্যাস ভারতের প্রাচীণতম প্রথাগুলির মধ্যে অন্যতম। অনেক গবেষণায় প্রমাণিত যে, মানসিক আর শারীরিক অবসাদজনিত বহু রোগ এবং সুস্বাস্থ্যের জন্য যোগা খুবই উপকারী। আজ গোটা দুনিয়া একবাক্যে তা স্বীকারও করছে। যোগার গুরুত্ব আর জনপ্রিয়তা ক্রমবর্ধমান। আমরা তাকিয়ে রইলাম দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক যোগা দিবস পালনের দিকে।