আপনার নিরাপত্তার স্বার্থে কলকাতায় InfoCon

1

মোদি সাহেবের দৌলতে হাতে হাতে টাকা দেওয়ার রেওয়াজ কমবে। এই আনন্দে লাফাচ্ছে ওয়ালেটওয়ালা সব সংস্থা। ফিনটেক সংস্থারা পৌষ মাসের গন্ধ পাচ্ছেন। কেউ বলছেন ৩০ শতাংশ বৃদ্ধি নিশ্চিত। কেউ বলছেন, সময় লাগবে কিন্তু মানুষ নাকি অনলাইনে বিকিকিনির স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করতে শুরু করে দিয়েছেন। আর এত দোকান পাট, এত মল, এত খুচরো ব্যবসায়ী এদের কী হবে। মাথায় হাত দিয়ে অতলান্ত ভাবতে শুরু করে দিয়েছে ফুটপাথ, হাতিবাগান, খান্না, গড়িয়াহাট। কেউ কেউ বলছে, বাজার এখন মন্দা ঠিকই কিন্তু আবার উঠবে। প্রয়োজনে সোয়াইপ মেশিন রাখতে চাইছে রাস্তার চালু চায়ের দোকানও। বড় বড় বাজারে গেলে এখনই মাছওয়ালা এগিয়ে দিচ্ছে কার্ড সোয়াইপের যন্ত্র। কারও কারও দোকানে আঁটা পেটিএম স্টিকার। ট্যাক্সি, অটোতেও একই স্টিকার লাগানো। নীল। সাদা। আরও একটা কমিউনিটি।

পাশাপাশি একদল মানুষ আতঙ্কিত। কী হবে! যদি ফোন ট্যাপ হয়। হ্যাকাররা ব্যাঙ্কিং তথ্য হ্যাক করে, রাতারাতি অ্যাকাউন্ট সাফ করে দেয়! খলের তো ছলের অভাব হয় না!

এরকম সাত পাঁচ ভাবতে ভাবতে আপনার যদি রাতের ঘুমের ব্যাঘাত ঘটছে তবে জানিয়ে রাখি, এত চিন্তা করবেন না। জগতে এখনও শুভ শক্তি জাগ্রত। যারা আপনার নিরাপত্তার স্বার্থে অতন্দ্র প্রহরায় আছেন, তারাও সমান আন্তরিক।

এ যেন সীমান্ত রক্ষার মতই গুরুত্বপূর্ণ কাজ। আপনার পকেটে যেন দুর্বৃত্তরা সার্জিকাল স্ট্রাইক না করতে পারে, আপনার গুরুত্বপূর্ণ তথ্যে, হার্ডডিস্কে, ফেসবুক অ্যাকাউন্টে কিংবা মোবাইল ফোনে যাতে হানা না দিতে পারে হ্যাকার। আপনার নিরাপত্তা যাতে বিঘ্নিত না হয় তাই নিত্ত নতুন প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন একদল ইঞ্জিনিয়ার আর প্রোগ্রামার। তাঁদের আপনি হয়তো চেনেনও না। তাঁদের নাম কখনও শোনেননি। কিন্তু তাঁরা আছেন বলেই আপনি নিশ্চিন্তে আছেন।

এবার কলকাতায় তাঁরা সম্মেলন করছেন। সুরেশ নেওয়টিয়া সেন্টার ফর এক্সেলেন্সে তথ্য নিরাপত্তা নিয়ে আন্তর্জাতিক স্তরের একটি সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। ইনফোকন ২০১৬। এর আগে এই সম্মেলন হয়েছে বাংলাদেশে। এবং তারপর লন্ডনে। এবার হচ্ছে কলকাতায়। থাকছেন দেশের তাবড় সংস্থা, কর্পোরেট দুনিয়ার বড় কর্তারা। থাকবেন ন্যাসকমের আঞ্চলিক প্রধান নিরুপম চৌধুরি, কলকাতার মুখ্য নগরপাল রাজীব কুমার। সাইবার পুলিশ স্টেশনের কর্তা সিদ্ধার্থ চক্রবর্তী, ইন্ডিয়ান স্কুল অব এথিকাল হ্যাকিংয়ের প্রতিষ্ঠাতা সন্দীপ সেনগুপ্ত, এবং সংগঠনের চেয়ারম্যান এবং প্রাইম সংস্থার কর্ণধার সুশোভন মুখার্জি।

১৮ তারিখের এই সম্মেলনে উঠে আসবে তথ্য সুরক্ষার নানা দিক। সাধারণ মানুষের প্রয়োজনীয় নানান বিষয় যেমন এই সম্মেলনের আলোচিত হবে তেমনি আলোচিত হবে কর্পোরেট সংস্থার জন্যে প্রয়োজনীয় নানান বিষয়। কীভাবে বড় সংস্থা তাদের গুরুত্বপূর্ণ তথ্যকে হ্যাকারদের হাত থেকে রক্ষা করতে পারবেন তার একটা সমাধান সূত্র পাওয়া যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।