ছাত্রের বানানো মডেলে হবে রেলের টয়লেট

0

ভারতীয় রেলের টয়লেট তাও আবার গন্ধহীন এবং জলহীন করার দৌড়ে সম্প্রতি হয়ে গেল একটি প্রতিযোগিতা। লখ্‌নৌয়ে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। গোটা দেশ জুড়ে জমা পড়া অসংখ্য এন্ট্রির মধ্যে থেকে মাত্র পাঁচটি এন্ট্রিকে চূড়ান্তভাবে বাছাই করা হয়েছে। এর মধ্যে যেমন দীর্ঘদিনের পোড় খাওয়া অভিজ্ঞ ইঞ্জিনিয়ররা রয়েছেন তেমনি রেয়েছেন একজন ছাত্র। মণিপাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টি অব আর্কিটেকচারে ছাত্র বিনোদ এন্টনি টমাস। ওর দেওয়া মডেলটি বিশেষভাবে প্রশংসিত হয়েছে। কারণ টমাসের গবেষণায় ধরা পড়েছে ভারতীয় রেলের যে টয়লেট সিস্টেম রয়েছে তাতে রেল ট্র্যাকে বর্জ্য, মলমূত্র ডিসপোস করার পদ্ধতি অত্যন্ত অস্বাস্থ্যকর এবং পরিবেশ দূষণকারী। এর বিকল্প হিসেবে বিনোদ দেখিয়েছেন আরও আধুনিক বন্দোবস্ত। যেখানে টয়লেট মল এসব জমা হবে একটি বায়ো ডিগ্রেডেবল এয়ারটাইট প্যাকেটে। সিল্‌ড অবস্থায় থাকবে। এবং সেগুলি জমা হবে একটি বৃহদাকার বিনে। বিনোদের রিসার্চ বলছে উপযু্ক্ত ফ্লাশিং সিস্টেমও নেই এখনকার টয়লেট গুলিতে সে কারণেই জলের অপচয় হচ্ছে অথচ দুর্গন্ধ যাচ্ছে না। বিনোদ বলছেন ক্র্যাঙ্ক হুইল (ছবিতে দেওয়া 3 নম্বর হুইল) চালিয়ে বর্জ সরানোর পরই ডি কম্পোজিশন শুরু হবে এবং জলীয় অংশ বাস্পীভূত করা হবে এবং সেই বাস্পকে ভেন্টিলেশন সিস্টেমের মারফত কামরার বাইরে বের করে দেওয়া হবে। ফলে দুর্গন্ধ হবে না। জলের অপচয় বন্ধ হবে এবং স্বাস্থ্যকর টয়লেট পাবে ভারতীয় রেল। এই বিশেষ ধরণের শৌচাগারের মডেল বানিয়ে পুরস্কৃত হয়েছেন মণিপাল বিশ্ববিদ্যালয়ের এই ছাত্র। লখ্‌নৌয়ের রিসার্চ ডিজাইন অ্যান্ড স্যান্ডার্ডস অর্গানাইজেশনের আয়োজন করা এই প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় স্থান পয়েছেন তিনি। তাঁর বানানো ডিজাইন নিয়ে রীতিমত ভাবনা চিন্তা শুরু করে দিয়েছেন রেলের বড়কর্তারা।

(ThinkChange India Story)