রাজধানীর স্টার্টআপ নবরত্ন

0

নয়াদিল্লিতে ইতিমধ্যেই ভালো ব্যবসা করছে কয়েকটি ই-কমার্স সংস্থা। এদের ভিতর রয়েছে স্ন্যাপডিল, লেন্সকার্ট, হেলথ কার্টের মতো সংস্থা। তবে গত কয়েক বছর ধরে ই-কমার্স ছাড়াও অন্য সংস্থাগুলিও ভালো ব্যবসা করছে রাজধানীতে। বিশেষত স্টার্ট আপগুলি। ২০১৬ সালের ব্যবসাপত্রের নিরিখে রাজধানীর যে স্টার্টআপ গুলি এখন চর্চার বিষয় তাদের মধ্যে থেকে ৯ টিকে বাছাই করেছি আমরা।

CASHKARO

এই সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা স্বাতী ভার্গব। অনলাইন রিটেইল নিয়ে কাজ করে ক্যাশকরো। পেটিএম বলুন, কিংবা ফ্লিপকার্ট। আমাজন বলুন কিংবা মেক মাই ট্রিপ কোথায় কোন অফার চলছে তার হদিস পাবেন ক্যাশকরোতে। সেখানে থাকছে কুপন, গেট অফার বাটনে ক্লিক করলেই অফার পাবেন। 

GROFERS

সংস্থাটির প্রতিষ্ঠাতাদের নাম হল সৌরভ কুমার এবং আলবিন্দার ধিন্দসা। স্থানীয় স্তরের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কাজ করে এই সংস্থা। এককথায় গুফার্স অন-ডিমান্ড ডেলিভারি সার্ভিসের কাজ করে। এর মধ্যে রয়েছে মশলাপতি, ফল, সব্জি, বেকারি প্রোডাক্ট থেকে শুরু করে আপনার গৃহপালিতের জন্যে প্রয়োজনের জিনিসও।

LYBRATE

সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা সৌরভ অরোরা। কাছাকাছির ভিতর ডাক্তার লাগলে লাইব্রেটের ওপর দরকারে চোখবুজেই নির্ভর করতে পারেন। এই ধরনের কাজ এদেশে অল্প কয়েকটি সংস্থা করছে। লাইব্রেট তাদের ভিতর অগ্রগণ্য। স্পে্শালিস্ট ডাক্তারের সঙ্গে রোগীর অ্যাপয়েন্টমেন্ট করিয়ে দেওয়ার কাজটিও করে লাইব্রেট।

OYO ROOMS

সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা রীতেশ আগরওয়াল। ৫০টির বেশি শহরের হোটেল সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য পাবেন ওইও রুমসে। লোকে যখন ঘরের বাইরে পা রাখে, সেইসময়ে তাঁর বসবাস সম্পর্কে নতুন ধারণা ও পরিষেবা দেওয়াই এই সংস্থার কাজ। প্রায় ১০০০ হোটেল রয়েছে এদের তালিকায়।

PEPPERTAP

এই সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা মিলিন্দ শর্মা ও নভনীত সিং। অনলাইনে মশলাপাতি সরবরাহের ক্ষেত্রে PAPPERTAP সবচেয়ে বড় সংস্থা। অনেকেই এই ব্যবসা আরম্ভ করে পরে ক্ষতির মুখ দেখেছে। ব্যবসা গুটিয়েও নিয়েছে অনেকে। তবে মিলিন্দ-নভনীতরা এখনও অপ্রতিরোধ্য।

POPXO

সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা প্রিয়াঙ্কা গিল, নম্রতা বসট্রম। POPXO কনটেন্ট তৈরির কাজ করে থাকে। মহিলাদের কাছে ইতিমধ্যেই জনপ্রিয়তা পেয়েছে। স্টাইল, ট্রেন্ড, রান্না বান্না, সম্পর্ক সব মুখরোচক কোনও বিষয়ই ওরা বাদ দেন না। ফলে বেশ জনপ্রিয় ওদের সাইট।

ROPOSO

সংস্থার প্রতিষ্ঠাতার নাম মৈনাক ভাঙ্গাডিয়া ও অবিনাশ সাক্সেনা। এটি একটি সোশ্যাল শপিং প্ল্যাটফর্ম। ইন্টারনেটের সমস্ত স্টোর থেকে ক্রয়ের সুবিধা দিয়ে থাকে এই সংস্থা। পরস্পরের সঙ্গে মত বিনিময়েরও জায়গা তৈরি করে দিয়েছে রুপোসো। অন্ততপক্ষে ১৫০টি ওয়েব স্টোর থেকে আপনি পছন্দের ফ্যাশনের জিনিস বেছে নিতে পারবেন।

VIDOOLY

ভিডুলির প্রতিষ্ঠাতা তিনজন। নিশান্ত রাডিয়া, অজ‌য় মিশ্র ও সুব্রত কর। কনটেন্ট নির্মাতা। বহুজাতিক ব্র্যান্ডগুলির সঙ্গে কাজ করে এই সংস্থা। প্রত্যেক গ্রাহকের বা সংস্থার দৃষ্টিভঙ্গি তৈরিতে সহায়তা করে থাকে ভিডুলি। ইউটিউবকে ব্যবহার করে কীভাবে আরও বেশি রোজগার হতে পারে – সেই পথই বাতলায়।

ZOSTEL

সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা সাতজন। তাঁদের ভিতর চারজন ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অব ম্যানেজমেন্টের প্রাক্তনী। দুজন আইআইটি এবং একজন বিএইচইউ-এর প্রাক্তনী। জোস্টেল ভারতের ‌প্রথম ব্যাকপ্যাকার্স হোস্টেলটি তৈরি করেছে। পর্যটন শিল্পে বিপ্লব আনার চেষ্টা করছে এই সংস্থা। জোস্টেল এমন একটি কেন্দ্র যেখানে আপনি মিলিত হতে পারবেন সারা দুনিয়ার পর্যটকদের সঙ্গে। একে অপরের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিতে পারবেন।