DreamZone- এর উদ্যোগে সৃজনশীলতার উৎসব

1

উদ্যোগপতি নির্মাণের কাজটা করে দেখাতে চাইল ড্রিমজোন। ড্রিমজোন স্কুল অব ক্রিয়েটিভ স্টাডিজের তত্ত্বাবধানে সম্প্রতি হয়ে যাওয়া এনটিনপ্রেনিওরস এক্সপো ২০১৭ যেভাবে পালিত হল তাতে ওই প্রদর্শনী থেকেই বেরিয়ে এলো বেশ কিছু উদ্যোগপতি। তরুণ প্রজন্মের ১২০ জন সৃজনশীল ছেলেমেয়ে এই প্রতিযোগিতা এবং প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করেছিল। তিনদিনের অনুষ্ঠানে তারা দেখিয়ে দিল কীভাবে আইডিয়া থেকে সফল ব্যবসার হাত ধরা যেতে পারে।

উনিশে এপ্রিল থেকে একুশে এপ্রিল তিন দিনের অনুষ্ঠানে আলোচনার যেমন অবকাশ ছিল তেমনি ছিল হাতের কাজের প্রদর্শনী। ফ্যাশন শো। ফ্যাশন ফোটোগ্রাফি। থ্রি ডি প্রিন্টিংয়েরর কাজ। নানান ডিজাইনের গয়নার পসরা। শর্ট ফিল্ম স্ক্রিনিং। এক কথায় সৃজনশীলতার মহা সমারোহ।

enTEENpreneurs EXPO 2017 হল সেই প্লাটফর্ম যেখানে সম্ভাবনাগুলো বিকশিত হওয়ার সুযোগ পেয়েছে। অধিকাংশই ছাত্ররা এই প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করে। বয়স যাদের কুড়ির কোঠা ছুঁই ছুঁই। দেওয়ালে টাঙানোর মত ছবি, শিল্পের নানান কারুকাজ যেমন ছিল। তেমনি ছিল দেওয়াল ঘড়ি, ফেব্রিক পেইন্টিং, উইন্ড চাইম ইত্যাদি। সবই ওদের হাতে বানানো। কর্পোরেট গিফট হিসেবে ছিল বর্জ্য থেকে তৈরি দুর্দান্ত সব সামগ্রী। 

পোশাকেরও নানান ভ্যারাইটি চোখে পড়েছে। ছুঁচ সুতোর দারুণ কাজ। কেতা দুরস্ত আবালবৃদ্ধবনিতার পোশাক। সঙ্গে মানানসই অ্যাকসেসরিস। এবং এই প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণকারীদের কাজের গুণগত মান বিচার করেছেন বিভিন্ন শাখার দিকপালেরা।

উপস্থিত ছিলেন সুপর্ণ মৈত্র, ন্যাসকমের প্রাক্তন আঞ্চলিক প্রধান। ট্রেজার অব ইনোসেন্সের কর্ণধার, রানি ভবানী। বাংলাদেশের নামজাদা ফ্যাশন ডিজাইনার বিপ্লব সাহা। ভিডিওকনের পূর্বাঞ্চলীয় প্রধান, ইন্দ্রজিত ঘোষ। শিল্পোদ্যোগী সঞ্জয় প্রসাদ। সুগার অ্যান্ড স্পাইসের কর্ণধার সুপ্রিয়া রায়, অভিনেত্রী এবং চিত্রপরিচালক সুদেষ্ণা রায় প্রমুখ।

সিএডিডি-র ম্যানেজিং ডিরেক্টর এস কে সেলভান বলেন বাংলাকে উদ্যোগের মানচিত্রে দেখতে চায় তাদের সংস্থা। এবং বাংলায় যে কি ভীষণ সম্ভাবনা রয়েছে তা এই তিনদিনে কর্মশালা থেকেই স্পষ্ট।