ব্যবসায়ীদের স্বপ্ন দেখাচ্ছে সপম্যাটিক

0

অনুরাগ আভুলা, ইয়েন টি লিম ও ক্রিস চেন। এই তিন তরুণ উদ্যোগীর হাত ধরেই ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে আত্মপ্রকাশ করে ওয়েবসাইট ‘সপম্যাটিক’। সিঙ্গাপুরে জন্ম। সেখানেই শৈশব কেটেছে সপম্যাটিকের। সেখানেই তার নতুন ভাবনা বহু ব্যবসায়ী ও নতুন ব্যবসার জগতে পা দেওয়া তরুণদের মন কেড়ে নেয়। ডু ইট ইয়োরসেলফ ভাবনাকে হাতিয়ার করে অতি অল্প সময়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে চলে আসে সপম্যাটিক।

এখন প্রশ্ন হল কী এমন কাণ্ড ঘটাল সপম্যাটিক, ‌‌যে তার এত প্রশংসা হচ্ছে! তাহলে পুরো ব্যপারটা খুলেই বলা যাক। সংস্থা বড় হোক বা ছোট, সপম্যাটিকে নিজের সংস্থাকে তালিকাভুক্ত করতে পারবেন ব্যবসায়ীরা। সেখানে নিজেদের পসরার য‌থেচ্ছ ছবি পোষ্ট করতে পারবেন। নিজের মত করে সপম্যাটিকের সাহায্যে নিজের একটি ওয়েব তৈরি করতে পারবেন ব্যবসায়ীরা। সেটা নিজের মত করে সাজাতেও পারবেন। আর এ সবই হবে একটাই লক্ষ্যপূরণকে সামনে রেখে। তাহল নিজের পণ্য বিক্রি ও অধিক মুনাফার জন্য দ্রুত মানুষের আরো কাছে পৌঁছন।

গ্রাহক সংস্থাগুলি ‌যাতে অনলাইনে আরও বাজার পেতে পারে সেকথা মাথায় রেখে সপম্যাটিক তাদের পণ্যগুলিকে অ্যামাজন, ফ্লিপকার্ট,ইবে,লাজাদা,রাকুটেন, জালোরার মত ই-কমার্স সাইটগুলিতে তালিকাভুক্ত করে দিচ্ছে। ‌যাতে এই জয়প্রিয় ই-কমার্স সাইটগুলি থেকেও অনলাইনে তাদের সামগ্রি বেচার সু‌যোগ পান তাদের গ্রাহক সংস্থারা। এসব সুবিধা দিতে সপম্যাটিক গ্রাহক পিছু মাসিক ২০ ডলার ধার্য করেছে।

এখানেই শেষ নয়, সপম্যাটিকের তালিকাভুক্ত হলে ব্যবসার উন্নতিতে প্রয়োজনীয় পরামর্শও দেবে সংস্থা। ‌যা সপম্যাটিক ওয়েবসাইটে আপনা থেকেই হতে থাকবে। সপম্যাটিকের বিজনেস ইন্টেলিজেন্স টুল গ্রাহক সংস্থার জন্য খুঁজে দেবে ক্রেতা। এছাড়া অন্য কী পণ্য আনলে তা দ্রুত বাজার পেতে পারে তারও হদিস দেবে সপম্যাটিক। ফলে গ্রাহকদের দ্রুত মুনাফার মুখ দেখান সম্ভাবনাও বাড়বে। ইন্টেলিজেন্স টুল গ্রাহকদের খাতায় কলমে দেখিয়ে দেবে তাদের ব্যবসার সম্পূর্ণ খতিয়ান। ক্রেতাদের পছন্দের ধারাও গ্রাহক সংস্থাগুলিকে নিরন্তর দিতে থাকে সপম্যাটিক। জানাতে থাকে মরশুমী চাহিদাও।

অনুরাগের দাবি, তাঁরা তাঁদের গ্রাহকদের অত্যাধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর বিশ্বমানের একটা অভিজ্ঞতা উপহার দিতে সবসময়ে তৈরি। তিনি মনে করেন সপম্যাটিক গ্রাহকদের একটা মৌলিক আত্মপরিচয় তৈরি করার সু‌যোগ করে দেয়। আর এখানেই তারা অন্য সব অনলাইন বাজারের চেয়ে আলাদা।

সিঙ্গাপুরের পর ভারতেও সম্প্রতি কাজ শুরু করেছে সপম্যাটিক। ভারতে পা রাখার এক সপ্তাহের মধ্যেই তারা ১০০ জন গ্রাহক পেয়ে গেছেন। ‌যা প্রতিদিনই বেড়ে চলেছে। সংস্থার আসা ২০১৬-র মধ্যে ভারতে তাদের গ্রাহক সংখ্যা ১০ লক্ষ ছাড়িয়ে ‌যাবে।

অনুরাগের দাবি সপম্যাটিক একজন ব্যবসায়ীর জীবন বদলে দিতে পারে। তাঁদের এমন একটা প্ল্যাটফর্ম দিতে পারে ‌যা গ্রাহকদের ব্যবসার উন্নতির পাশাপাশি তাদের মনের কোণে লুকিয়ে থাকা আকাঙ্খাকেও পূরণ করবে। ২০১৬-র মধ্যেই বেঙ্গালুরু, গুরগাঁও সহ ১৮টি শহরে ছড়িয়ে পড়তে চলেছে সপম্যাটিক। মধ্যপ্রাচ্য, আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়াতেও দ্রুত নিজেদের শাখা বিস্তার করতে চলেছে সপম্যাটিক। গ্রাহকদের কাছে পৌঁছতে বিভিন্ন ভাষায়ও এই সাইটটিকে ছড়িয়ে দিতে এখন পুরো উদ্যমে কাজ করছেন সপম্যাটিকের তিন স্বপ্নসন্ধানী জন্মদাতা।

Related Stories