কর্মজীবন থেকে হারিয়ে যাওয়া মহিলাদের ক্যামব্যাক ঘটাচ্ছে RelauncHER

0

সংসার সামলাতে গিয়ে এদেশের বহু মহিলাকেই নিজের প্রফেশনাল কেরিয়ার জলাঞ্জলি দিতে হয়। কমিশন ফর টেকনোলজি অ্যান্ড ইনোভেশনের পরিসংখ্যান বলছে, প্রতি ১০০ জন কর্মরত মহিলার মধ্যে এই সংখ্যাটা ৩৬। অবশ্য চাকরি ছাড়ার ১ বছরের মধ্যেই এদের ৯১% কাজে ফিরতে চান। তবে খুব অল্প সংখ্যক মহিলাই সফল কামব্যাক করতে পারেন। কারণ একবার কাজের থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়লে সুযোগগুলো অনেকটাই কমে যায়। এতে যেমন মেধা ও মানবসম্পদের অপচয় হয় তেমনভাবেই বহু টাকা পয়সা খরচ করে উচ্চ শিক্ষিত হওয়া সত্বেও সেটা জলে যায়। শেষপর্যন্ত মাত্র ৫% মহিলাই সংসার সামলে কাজে ফিরে আসেন। আর যারা ইচ্ছে স্বত্ত্বেও তা পারেন না, তাদের সফল কামব্যাকের পথ দেখাচ্ছে relauncHER।

এভাবেও ফিরে আসা যায়

এই উদ্যোগের পিছনে দুই মহিলা – অংশু সিং এবং জ্যোতিকা সিং। দুজনেই তথ্যপ্রযুক্তিবিদ। যৎসামান্য পুঁজি নিয়ে ২০১৩ সালে তাঁরা এই সংস্থা শুরু করেন। পেশাদার হিসেবে কমপক্ষে ৩ বছরের অভিজ্ঞতা আছে, কাজের পারদর্শী, অথচ চাকরিজীবনে ছেদ পড়েছে। মূলত এমন মহিলাদের পেশাদারি জীবনকেই রিস্টার্ট করে অংশু, জ্যোতিকাদের relauncHER। 

অবশ্য চাকরি প্রার্থীদের নির্বাচনের ক্ষেত্রে বেশকিছু হার্ডল তৈরি রাখে সংস্থাটি। সংস্থায় নাম নথিভুক্ত করার পর টেলিফোন ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে জনৈক ক্যান্ডিডেটের মানসিকতা, কর্মদক্ষতার মতো বিষয়গুলো যাচাই করা হয়। এরপর relauncHER অ্যাসোসিয়েট প্রোগ্রামের মাধ্যমে সেই চাকরিপ্রার্থীর কাউন্সেলিং করার পাশাপাশি তার পেশাদারি ক্ষমতা, দক্ষতা পরখ করা হয়। এই হার্ডেল টপকালে তবেই তার সিভি সংশ্লিষ্ট কোম্পানিতে পাঠানো হয়। যদি সেই ক্যান্ডিডেটের দক্ষতায় ঘাটতি থাকে, তা পূরণ করতে রয়েছে enricHER কর্মশালা।

এনরিচ, মানে সমৃদ্ধ করা। enricHER নামক কর্মশালাটির উদ্দেশ্যও ঠিক তাই - একজন মহিলাকে তাঁর প্রয়োজন অনুযায়ী প্রশিক্ষণ দেওয়া। জনৈক চাকরিপ্রার্থীকে ইন্টারভিউতে সফল হওয়ার নানা কৌশল শেখানোর পাশাপাশি তাঁর কর্মদক্ষতাকে শান দিতে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

এর পাশাপাশি রয়েছে ‘Freelancer and SelfstartHER’ পরিষেবা। যার মাধ্যমে মহিলাদের সফল উদ্যোগপতি হয়ে ওঠার পাঠ দেওয়া হয়।

এসব দেখে মনে হতেই পারে, আর পাঁচটা জব কন্সালটেন্সি ফার্মের সঙ্গে relauncHER–এর কোনও তফাত নেই। জ্যোতিকা সিং বলেন, ‘তা একদমই নয়। আমরা সেই সমস্ত সংস্থার সঙ্গে যুক্ত যারা উচ্চপদে মহিলাদের সুযোগ দেয়। যেসব স্টার্টআপে অত্যন্ত কর্মদক্ষ কর্মীর অভাব তাদের কাছেও আমরা দক্ষ মহিলা কর্মী সরবরাহ করি। আমাদের উদ্দেশ্য কর্পোরেট জগতে দক্ষ মহিলাকর্মীর অভাব পূরণ এবং যোগ্য মহিলা কর্মীদের কর্পোরেট দুনিয়ার উচ্চপদে সুযোগ করে দেওয়া। দিনের শেষে আমরা মহিলাদের ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে কাজ করি। এই লক্ষ্যটাই আর পাঁচটা কনসালটেন্সি সংস্থার থেকে relauncHER- কে আলাদা করে দেয়’।

(লেখা: মণীষা বি অনুবাদ: ঋত্বিক দাস)