৪০ মিনিট, ৪০ টি প্রশ্ন ও তার ৪০টি উত্তর - অমিতাভ কান্টের সাথে #StartupIndia র‍্যাপিড ফায়ার

0

১৬ই জানুয়ারি। ভারতে স্টার্টআপদের কাছে the Big Day । সবাই তাকিয়ে আছেন কী হয় কী হয় উত্তেজনা। শোনা যাচ্ছে লক্ষাধিক উদ্যোগপতি বিজ্ঞানভবনের মূল অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে চেয়েছিলেন। কিন্তু এত লোকের জায়গা কই। তাই টিভি, ইওরস্টোরির পাতা আর ট্যুইটারেই চোখ রাখতে হবে আর কি। তার আগেই ট্যুইটারে ঝড় ওঠা শুরু হয়ে গেছে। 

স্টার্টআপ নিয়ে একটি সামগ্রিক অ্যাকশান প্ল্যান গড়ে তোলার জন্য ডিপার্টমেন্ট অফ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পলিসি অ্যান্ড প্রমোশান (DIPP) তাদের উদ্যোগে কোনোরকম খামতি রাখছেনা। ঐতিহাসিক এই কার্যক্রমে দেশের সমস্ত প্রান্তে থাকা শুরুয়াতি উদ্যোক্তারা নিজেদের ভাবনাচিন্তা ব্যক্ত করতে পারবেন এবং সুযোগ পাবেন সরাসরি পলিসি মেকারদের সাথে কথা বলার। ১৬ তারিখের এই আলোচনার বিষয়বস্তু কি হবে, DIPP ইতিমধ্যেই তা জানিয়ে দিয়েছে।

ভারতের বিভিন্ন অংশের অ্যান্তপ্র্যানোরদের মতামত ও তাঁদের দৃষ্টিভঙ্গি সমন্ধে উদ্যোক্তাদের অবগত করার উদ্দেশ্যে ইওরস্টোরি ভারত সরকারের অধীনস্থ ‘স্টার্টআপ ইন্ডিয়া’ ক্যাম্পেনের সাথে গাঁটছড়া বেঁধেছে। এরই অংশ হিসাবে ২০০০ অংশগ্রহণকারীকে নিয়ে হওয়া এক সমীক্ষার ফলাফল ছিল বেশ চমকপ্রদ। অনেকগুলি গুরুত্বপূর্ণ মতামত উঠে এসেছে আলোচনাকারীদের মধ্য থেকে। উদ্যোক্তারা ব্যক্ত করেছেন তাঁদের প্রত্যাশার কথাও।

এই মেগা ইভেন্টের প্রস্তুতিপর্বের অংশ হিসাবে DIPP এর সেক্রেটারি অমিতাভ কান্ট গত ১২ জানুয়ারি অংশ নিয়েছিলেন ইওরস্টোরির উদ্যোগে সংঘটিত #StartupIndia শীর্ষক একটি ঘন্টাব্যাপী টুইটার চ্যাটে, যেখানে তিনি শ-খানেক অ্যান্তপ্র্যানোর এবং স্টার্টআপ ইকো সিস্টেমের উপর নির্ভরশীল ব্যক্তিদের একাধিক জিজ্ঞাসার উত্তর দিয়েছেন। ১৯৮০’ ব্যাচ এর আইএএস অফিসার এই অমিতাভ কান্ট ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’, পুরস্কারজয়ী ‘ইনক্রেডিবল ইন্ডিয়া’ সহ একাধিক গুরুত্বপূর্ন প্রচার ক্যাম্পেন পরিচালনা করেছেন।

নিচে অমিতাভ কান্টের সাথে হওয়া এই টুইটার চ্যাট #StartupIndia এর সংক্ষিপ্তসার প্রকাশ করা হল -

অমিতাভ কান্টের মতে 'ডিজিটাল ইন্ডিয়া' উদ্যোগ ভারতের ইন্টারনেট যোগাযোগ ব্যবস্থাকে এক অন্য পর্যায়ে উন্নীত করবে।

অ্যান্তপ্র্যানোরশিপ সমন্ধে একজনের প্রশ্নের উত্তরে তিনি আরো বললেন -

উনি ভারতে পেটেন্টিং ব্যবস্থা, যা এইমুহুর্তে বিবিধ ধরনের প্রয়োজনীয় রদবদলের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে, সেটাকে আরো উন্নতভাবে গড়ে তোলার প্রতিশ্রুতি দিলেন।

ভারতের মহিলা উদ্যোক্তাদের নিয়েও তিনি নিজের মতামত রাখলেন -

উনি শোনালেন মেক ইন ইন্ডিয়া ও ইন্ডিয়া ইনক্রেডিবলে ওনার কাজের অভিজ্ঞতার কথা। এবং এক্ষেত্রে ভবিষ্যৎ দিশা দেখানোর জন্য তিনি নতুন স্টার্টআপ গড়ে তোলার পরামর্শ দিলেন।

তিনি জানালেন যে সরকার প্রয়োজনীয় গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রগুলিতে মনোনিবেশ করছে।

গোটা দেশ জুড়ে বিবিধ ধরনের উদ্যোগগুলিকে চাঙ্গা করা এবং প্রাথমিক স্তরে থাকা স্টার্টআপগুলিকে সাহায্য করার লক্ষ্যে ভারত সরকার যে বেশ কিছু বিষয় ঘোষণা করেছে, তিনি জানালেন সেকথাও।

মাত্র ৪০ মিনিট সময়ের মধ্যে অমিতাভ কান্ট ৪০টিরও বেশি প্রশ্নের উত্তর দিলেন। তবে প্রশ্নোত্তর পর্ব ও বিবিধি ঘোষণার অনেকটাই বাকি রয়ে গেছে আগামী ১৬ তারিখের জন্য।

স্টার্টআপ ইন্ডিয়া স্ট্যান্ডআপ ইন্ডিয়া সংক্রান্ত লাইভ আপডেটের জন্য আগামী ১৬ তারিখ চোখ রাখুন ইওরস্টোরির পাতায়। ইওরস্টোরি ভারত সরকারের DIPP এর এর অধীনস্ত স্টার্টআপ ইন্ডিয়া প্রোগ্রামের অফিশিয়াল পার্টনার।