কতটা প্রভাব ফেলতে পেরেছে ওলা, উবের ?

0

আজ থেকে পাঁচ বছর আগের কথা ভাবুন তো, গোটা দেশের কেউ কি ওলা-র নাম শুনেছিলেন? না, শোনেননি। তার কারণ সেই সময় এধরণের কোনও সংস্থা ছিলই না। তার প্রয়োজনই পড়েনি। কিন্তু এখন প্রতিদিন গড়ে সাড়ে সাত লক্ষ সওয়ারির জন্য ব্যবহার হয় ওলার প্রায় আড়াই লক্ষ গাড়ি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আগেই চালু হয়েছিল এই পরিষেবা। তার বছরখানেক পর ভারতে আসে ওলা। তবে এদেশে দেরিতে এলেও জনপ্রিয়তার নিরিখে দুই দেশে ওলার টক্কর কাঁটায় কাঁটায়।

চিনা সংস্থা দিদি কুয়াইদির বিনিয়োগ আরও মজবুত করেছে ওলাকে। একই ধরণের পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থা উবেরের সঙ্গে প্রতিযোগীতাতেও তাই পিছিয়ে নেই ওলা। খুব কম সময়ে যেভাবে এদেশের পরিবহন ব্যবস্থায় নজির গড়েছে ওলা, উবেরের মতো সংস্থা তা এক কথায় ওলটপালট করে দিয়েছে বহু হিসবনিকেশ - ভারতের স্টার্ট আপ ইকোসিস্টেম তাদের মূল্যায়ণ নিয়ে চিন্তিত, নিয়মে পরিবর্তন আনার কথা ভাবতে বাধ্য হচ্ছে সরকার, অতর্কিতে দেশের বাজারে এই কোম্পানিগুলির ঢুকে পড়া আটকাতে মরিয়া পদস্থ আধিকারিকেরা। যদিও গ্রাহকদের জন্য এসবেরই অর্থ আরও বেশি সুবিধা, আরও উন্নত পরিষেবা। তবে তা কি আদৌ চিরস্থায়ী? এরঅন্যান্য দিকগুলিও খতিয়ে দেখা দরকার। বিভিন্ন শহরে এই অন ডিম্যান্ড ক্যাব পরিষেবার প্রভাব সম্পর্কে জানতে একটি সার্ভে করেছে EMBARQ india। এই সার্ভে যাতে আরও বেশি মানুষের কাছে পৌঁছয় এবং বিষয়টির গভীরে খতিয়ে দেখতে এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সহযোগীতা করছে Yourstory।

বর্তমানে অন ডিম্যান্ড ক্যাবের ব্যবহার এবং প্রভাব সম্পর্কিত তথ্য সঠিকভাবে নতিভুক্ত এবং উপলব্ধ নয়। এই সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহের উদ্দেশ্য হল নিম্নলিখিত বিষয়গুলি খতিয়ে দেখা:

১। VKT (vehicle kilometres travelled) তে এর প্রভাব

২। গাড়ির ব্যক্তিগত মালিকানা বা ব্যবহারে এর প্রভাব

৩। গাড়ির পার্কিংয়ের ক্ষেত্রে প্রভাব

৪। যাত্রীদের উপর এর প্রভাব (সুরক্ষা, স্বাচ্ছন্দ্য, নির্ভরযোগ্যতা, ভাড়া/দামের তফাত)

৫। চালকদের উপর প্রভাব (রোজগার, অন্তর্ভুক্তি )

৬। পদস্থ আধিকারিকদের উপর প্রভাব (পারমিট, ডিজেল/সিএনজির মূল্য)

অনলাইনে যাত্রীদের দেওয়া উত্তর, চালকদের পরিদর্শন, সম্মিলিত তথ্য এবং বিদ্যমান পারিবারিক তথ্যের উপর ভিত্তি করেই গড়ে উঠেছে এই সার্ভে। সার্ভের প্রশ্নতালিকায় ব্যবহারকীদের সম্পর্কে তথ্য, যাতায়াতের কারণ, যাতায়াতের পূর্বতন এবং বিকল্প মাধ্যম, গাড়ির মালিকানা, অন ডিম্যান্ড ক্যাব সার্ভিস ব্যবহারের কারণ এবং এই পরিষেবার গুণগত মান সম্পর্কিত প্রশ্ন করা হয়েছিল।

বিশ্বব্যাপী এই পরিষেবার ব্যবস্থাপক সাড়া :

উবের, ওলা, ট্যাক্সি ফর শিওরের মতো অন ডিম্যান্ড ক্যাব পরিষেবার ব্যবস্থাপক ক্ষেত্রে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে বিভিন্ন রকম সাড়া মিলেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কিছু শহরের প্রশাসন এবং ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের সরকারের কাছ থেকে রাস্তায় নামার ছাড়পত্র মিললেও, অন্য অনেক ক্ষেত্রে এই পরিষেবা বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে। অগাস্ট ২০১৫ পর্যন্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ১৭টি শহর, ভারতের চারটি রাজ্য এবং একটি শহর (বিধাননগর, কলকাতা)অন ডিম্যান্ড ক্যাব সার্ভিসের পক্ষে অর্ডিন্যান্স পাশ করেছে। বেশ কিছু ক্ষেত্রে এই পরিষেবা সংক্রান্ত প্রশাসনিক আলোচনায় অভিনব ফল মিলেছে - 

উবের পরিষেবার অংশীদার হয়েছে বোস্টন সিটি, যার ফলে উবের তাদের সফরের তথ্য শেয়ার করে সেখানকার প্রশাসনের সঙ্গে। 

অন ডিমান্ড ক্যাব সার্ভিসকে ছাড়পত্র দিয়ে নিজেদের চিরাচরিত ট্যাক্সি ব্যবস্থায় নিয়ন্ত্রণ জারি করেছে লং বিচ, ফলে প্রতিযোগীতা বৃদ্ধি পাওয়ায় যাত্রী স্বাচ্ছন্দ্য বাড়ছে। আখেরে লাভবান হচ্ছেন যাতায়াতকারীরা।

নিউ ইয়র্ক সিটি প্রস্তাব দিয়েছে, উবের যাত্রীদের নির্দিষ্ট পরিমাণ কর দিতে হবে, যে টাকা সরাসরি যাবে সেখানকার পরিবহণ ব্যবস্থার উন্নয়নের খাতে। 

লন্ডনে অন ডিম্যান্ড ক্যাবের চালকদের জন্য নতুন একটি পরীক্ষা চালু করা হয়েছে।

ভারতের প্রতিক্রিয়া কী?

বিভিন্ন পরিবহন আধিকারিক এবং উদ্যোগপতিদের সঙ্গে নিম্নলিখিত বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা চালাচ্ছে EMBARQ india:‌

একটি নির্দিষ্ট মাপকাঠি বজায় রেখে কীভাবে ট্যাক্সির ক্ষেত্রে উদ্ধাবন বা পরিবর্তন করা যায়?

বর্তমান মডেলে কী কী পরিবর্তন আনলে তা পরিবহন ব্যবস্থার বৃহত্তর ক্ষেত্রে(যেমন পুলকার) গ্রহণযোগ্য করে তোলা যায়?

শহরের ক্ষেত্রে কীধরণের পরিষেবাকে মাপকাঠি হিসেবে ধরা হবে?

সম্ভাব্য সহযোগী উদ্যোগ অথবা পরবর্তী রিসার্চের ক্ষেত্র কী হতে পারে?

এই সার্ভে থেকেই আমরা একটি নির্দিষ্ট রিপোর্ট পেতে পারি, যার সাহায্যে ব্যবস্থাপক ক্ষেত্রে বিভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি নথিভুক্ত করতে পারা এবং পরবর্তী রিসার্চের জন্য সম্ভাব্য সহযোগী উদ্যোগগুলিকে চিহ্নিত করতে পারা সম্ভব। অন