ভারতের নাগরিকত্ব চান উবারের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ট্র্যাভিশ

0

সম্প্রতি উবার মোটো যাত্রা শুরু করল ভারতে। হায়দরাবাদে TiE গ্লোবাল সামিটে এই উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উবারের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ট্র্যাভিশ কালানিক। সেখানে বিভিন্ন বিষয়ে নানান সরস কথাবার্তা হল। কালানিক জানালেন, তিনি ভারতের নাগরিকত্ব নিতে ইচ্ছুক। কালানিক ভারতের অনেক কিছুই পছন্দ করেন। যেমন তাঁর পছন্দ হিন্দিভাষীদের বিবাহ বাসরের অনুষ্ঠান।

চিনে ইতিমধ্যেই ভালো ব্যবসা করছে উবার। ভারতেও ব্যবসার গ্রাফটা চিনের পরেপরেই বলে জানা গিয়েছে। এজন্য উবারের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ট্র্যাভিশ ভারত সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেছেন, সরকার এখন উদ্ভাবনের মর্ম উপলব্ধি করতে পারছেন। সেইসঙ্গে পরিবর্তনকে স্বাগত জানাচ্ছেন।

এসবের বাইরে ট্র্যাভিশ নিজের সম্পর্কে এমন কিছু তথ্য জানিয়েছেন নতুন প্রজন্মের ছেলেমেয়েদের যা দিশা দেখাতে পারে। ট্র্যাভিশ জানিয়েছেন, ছেলেবেলায় লেখাপড়ার শুরু হওয়ার পরেই মোটামুটিভাবে বুঝে ফেলা যায় কার পথ কী হতে পারে। যেমন তিনি নিজে বরাবর অঙ্কে ভাল। স্কুলের পিছনের বেঞ্চে বসে ক্লাস করলে কী হবে, স্যারের আগেই অঙ্কের সমাধান করতে পারতেন।

ওঁর কথায়, আসলে আমার মন ও মাথাটা ছিল ছেলেবেলা থেকেই ইঞ্জিনীয়ারিংয়ের। যে কোনও সমস্যা ওইভাবেই দেখতে ভালবাসতাম। এই মানসিকতাই পরবর্তীকালে উদ্যোগপতি হিসাবে ক্ষেত্র চিহ্নিত করতে তাঁর কাজে লেগেছে বলে জানিয়েছেন ট্র্যাভিশ কালানিক। কিন্তু যে কোনও সমস্যার সমাধানে কি সর্বক্ষেত্রে ধরাবাঁধা ছক থাকে? অবশ্যই নয়। বরং একএকটি সমস্যার সমাধানে ধাপে ধাপে বুঝতে হয় কীভাবে ওই সমস্যাটি সমাধান করা যেতে পারে। সেক্ষেত্রে কোন পদক্ষেপগুলি নেওয়া হলে সমস্যার সুচারু সমাধান সম্ভব হবে।

নিজের এই উপলব্ধির কথা জানিয়ে উবারের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ট্র্যাভিশ আরও জানালেন, জীবনে উদ্যোগী হিসাবে সাফল্যলাভ করতে গিয়ে তাঁর ঠকাঠকির ইতিবৃত্তও। সেইসঙ্গে বলেছেন প্রথমদিকে স্টার্ট আপ চালাতে গিয়ে তাঁর বিফলতার কাহিনি। 

তবে ভারতের রাস্তায় কি চালকবিহীন যান চালাতে পারবে উবার? কালানিক মনে করেন, ভবিষ্যতে তাও সম্ভব হতে্ পারে। তবে এজন্য আগে ক্ষেত্র প্রস্তুত করাটা প্রয়োজনীয়।

Related Stories