প্রযুক্তির ছোঁয়ায় শিক্ষা ব্যবস্থার Uttaron হোক

0

উত্তরণ এডু টেক শিক্ষাক্ষেত্রে নতুন ধরনের সামাজিক কাজ করে থাকে। এই স্টার্ট আপ সংস্থাটি পড়ুয়াদের সহায়তা করতে প্রযুক্তিগত সহায়তা নিয়ে থাকে। প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে শিক্ষামূলক কাজ করাই লক্ষ্য উত্তরণ এডু টেকের। এটি একটি অলাভজনক স্টার্ট আপ। গত চার বছর আগে সংস্থাটির প্রতিষ্ঠা। সেই থেকে কাজ চলছে ধারাবাহিকভাবে। কাজ শুরু করার দুবছরের মধ্যেই ২০১৪ সালে সংস্থাটি স্বীকৃতি পেয়েছে এনসিইআরটি-এর। নদিয়ায় একটি গ্রামীণ স্কুলে উল্লেখযোগ্য কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ এরা এনসিইআরটি-এর অনুমোদন পেয়েছে বলে সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে।

স্কুলপাঠ্য বিষয়গুলিকে ছাত্রছাত্রীদের কাছে সহজবোধ্য করতে উত্তরণ এডুটেকের তরফে নেওয়া হয়েছে একাধিক ডিজিটাল প্রকল্প। সে হিসাবে পাঠ্যসূচিকে অডিও এবং ভিডিও আকারে পড়ুয়াদের কাছে হাজির করানো হচ্ছে। এছাড়াও, পিডিএফ আকারে স্কুলবই পাওয়া যাবে। পাওয়া যাবে মাইক্রো এসডিতেও।

এর ফলে ছাত্রছাত্রীরা অ্যানরয়েড ডিভাইসগুলি – যেমন মোবাইল ফোন, ট্যাবলেটের মাধ্যমে উত্তরণ ডিজিটাল অ্যাপের পাঠ্যপুস্তক পরিষেবা গ্রহণ করতে পারবে। অন্যদিকে, কনটেন্ট তৈরির ক্ষেত্রে ছাত্রছাত্রীদের সুবিধা-অসুবিধা, কীভাবে পাঠ্যসূচি উপস্থাপনা করলে তা পড়ুয়াদের কাছে বোধগম্য হবে, সেই দিকগুলিতেও বিশেষভাবে নজর দেওয়া হয়েছে বলে উত্তরণ এডু টেক জানিয়েছে।

যেমন, পাঠ্য বিষয়সূচিকে ভাগে ভাগে ভিডিও-র মাধ্যমে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। অবজেকটিভ ধরনের প্রশ্নোত্তর নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা থাকছে। এ ব্যাপারে উত্তরণ এডু টেকের তরফে জানানো হয়েছে, পাঠ্যসূচিকে ডিজিটালের অন্তর্গত করলে তা স্কুল পড়ুয়াদের বোঝার পক্ষে তুলনায় অনেক বেশি সুবিধাজনক।

এছাড়াও কিছু প্রশ্নোত্তরের আলোচনা করা হয়েছে অডিও-র মাধ্যমে। এই সংস্থা ছাত্রছাত্রীদের সরবরাহ করছে বিভিন্ন বিষয়ের ওপর নোটস, অতিরিক্ত প্রশ্নাবলী ও উত্তর। ছাত্রছাত্রীদের কাছে তাঁদের এই উদ্যোগগুলি সমাদৃত হয়েছে বলে জানিয়েছে উত্তরণ এডু টেক।