ওড়িশা দিচ্ছে স্টার্টআপদের এলাহি সুযোগ

3

ওড়িশায় স্টার্টআপ করলে স্টার্টআপ উদ্যোগপতিরা প্রতিমাসে দশ হাজার টাকার সহায়তা পাবেন। উদ্ভাবনী কোনও সামগ্রী তৈরি করে বাজার ধরার সময় ৫ লক্ষ টাকার বাড়তি ইনসেন্টিভ দেওয়া হবে। খুব শিগগিরই এই টাকার অঙ্কগুলো লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়বে বললেন ওড়িশার ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পোদ্যোগ দফতরের প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি লক্ষ্মী নারায়ণ গুপ্তা। শুধু কি তাই, ওড়িশা সরকার গত পয়লা মার্চ চালু করেছে স্টার্টআপ বিষয়ক হেল্প-লাইন নম্বর। আপনার যদি কোনও উদ্যোগ নেওয়ার ইচ্ছে হয় কিন্তু কীভাবে শুরু করবেন, কোথায় যাবেন বুঝতে পারছেন না তবে ওই হেল্প-লাইনে ফোন করলেই কেল্লাফতে। পেয়ে যাবেন উত্তর।

প্রথম তিন দিনেই ৩৭৪ টি কল এসেছে ওই নম্বরে। রাজ্যসরকারের এম এস এম ই ডিপার্টমেন্ট খুব খুশি। ২০২০ সালের মধ্যে এক হাজার স্টার্টআপের স্বপ্ন সফল হল বলে। রাজ্য সরকারের এই উদ্যোগে হাত মিলিয়েছে কেন্দ্রীয় ইনভেস্ট ইন্ডিয়া টিম। শুধু তাই নয়, হেডস্টার্ট এর কো ফাউন্ডার এবং ম্যানেজিং ডিরেক্টর অমিত সিং বললেন, খুব শিগগিরই ওরাও শুরু করছেন ওদের ভুবনেশ্বর শাখা। মেন্টরিং ওরাই দেবেন। আর দেবেন নেটওয়ার্ক করার সুযোগ। পাশাপাশি ইন্টেলেক্যাপের ম্যানেজিং ডিরেক্টর বিকাশ বালিও বলেছেন তারাও দেবেন ভার্চুয়াল ইনকিউবেশনের সুযোগ। ওড়িশা সরকারের স্টার্টআপ পলিসি অনুযায়ী নথিভুক্ত স্টার্টআপদের দেওয়া হবে এই সুযোগ। পাশাপাশি বাছাই করা পাঁচটি স্টার্টআপকে দেওয়া হবে আরও নিবিড় ইনকিউবেশন। ফান্ডিংয়ের সম্ভাবনাও রয়েছে।

তবে এই রাজ্যে ইকোসিস্টেম তৈরি করার কাজটা করছে ইনভেস্ট ইন্ডিয়া টিম। খুব শিগগিরই চালু হতে চলেছে স্টার্টআপ রেজিস্ট্রেশনের পোর্টাল। সম্ভবত ২২ মার্চ উদ্বোধন হবে পোর্টালের। আসছেন গুগলের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং নামজাদা অ্যাঞ্জেল ইনভেস্টর রাজন আনন্দন। ১ মার্চ ইনভেস্ট ইন্ডিয়ার সঙ্গে মেমোরেন্ডাম অব আন্ডারস্ট্যান্ডিং স্বাক্ষর করেছে ওড়িশা সরকার। তারপর থেকেই গড়গড়িয়ে চলছে স্টার্টআপ ওড়িশার রথ। ২০২০ সালের মধ্যে এক হাজার স্টার্টআপ তৈরি হওয়ার স্বপ্নটা খুব অস্বাভাবিক মনে করছেন না ওড়িশার এম এস এম ই দফতরের প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি এল এন গুপ্তা। আর ওড়িশার স্কিল অথরিটির চেয়ারম্যান সুব্রত বাগচি মনে করেন এবার ওড়িশা এগোবেই কারণ এগোনর লক্ষ্মণ গুলি স্পষ্ট দেখতে পাচ্ছেন মাইন্ড ট্রির কর্ণধার, প্রথিত যশা এই উদ্যোগপতি।

Related Stories