ডিজিটাল কমার্সে বিকন কি সেলসম্যানের বিকল্প?

0

গত কয়েক বছরে ই-কমার্সকে ঘিরে মানুষের উৎসাহ বেড়েছে। এক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে মাবইল ফোন। অনলাইন শপিংয়ের জোয়ারে মুখ থুবড়ে পড়েছে দোকানের ব্যবসা। তবে চারপাশের সবকিছু ডিজিটাল হয়ে যাওয়ার স্বপ্ন আমরা যতই দেখি না কেন, এখনও কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অধিকাংশ খুচরো ব্যবসায়ী ওমনি-চ্যানেল এবং সেখানকার ৯৫ শতাংশ ক্ষেত্রে ক্রেতারা স্বশরীরে, দোকানে গিয়ে জিনিস কেনেন।

কিছুদিন হল নতুন একটা ট্রেন্ড দেখা যাচ্ছে, যখানে অনলাইন এবং অফলাইন শপিং একে অপরের সঙ্গে প্রতিযোগীতা নয়, সহাবস্থান করছে। অনলাইন এবং অফলাইন শপিংয়ের দ্বন্দ্বের জন্য যদি প্রযুক্তিকে দায়ী করা হয়,তাহলে এখন দেখা যাচ্ছে এই প্রযুক্তির সাহায্যেই ক্রেতা ও বিক্রেতারা কাছাকাছি আসছেন। যে প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে অনলাইন শপিংয়ের রমরমা তাকে কীভাবে অফলাইন শপিংয়ের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা যায় তা খতিয়ে দেখছেন খুচরো ব্যবসায়ীরা। প্রযুক্তির সাহায্যেই দোকানে যাতে ক্রেতারা সঠিক জিনিস খুঁজে পান, এবং স্বাচ্ছন্দ্যে কেনাকাটা করতে পারেন সেরকম পরিবেশ গড়ে তোলার চেষ্টা চলছে।

আসুন, এবার আপনাদের সঙ্গে বিকনের দুনিয়ার পরিচয় করিয়ে দিই। বিকন একধরণের ছোট, ব্যাটারি চালিত, কমদামি ওয়্য়ারলেস যন্ত্র যা সর্বক্ষণ ব্লুটুথে বার্তা পাঠায়। বার্তায় বলা হয়, ''Hello, this is me,here is my ID.” স্মার্টফোনের অ্যাপস-এ এই সিগন্যাল ধরা পড়ে, এবং তার আইডি, অবস্থান, দূরত্ব, সময়, এবং ব্যবহারকারীর প্রয়োজনীয়তা অনুযায়ী স্মার্টফোন কাজ করতে পারে।

বিকনের ব্যবহার:

১। সন্ধান ও সংযোগ - আশপাশের গ্রাহকদের খুঁজে বের করা, তাদের স্বাগত জানানো এবং পথ দেখিয়ে নির্দিষ্ট দোকানে তাদের নিয়ে আসা। 

আপনি যদি বিক্রেতা হন, বিকন আপনার সামনে তুলে ধরতে পারে এমন এক দুনিয়া যেখানে হাজার হাজার মানুষের মধ্য থেকে সহযেই খুঁজে নেওয়া যায় একজন সম্ভাব্য ক্রেতাকে। তাঁকে স্বাগত জানিয়ে নিয়ে আসতে পারেন আপনার দোকানে। আপনার অ্যাপ সঠিকভাবে কাজ না করলেও বিকন তাকে দিয়ে কাজ করিয়ে নিতে পারে।

২। গ্রাহকের প্রয়োজন এবং চাহিদা অনুযায়ী পরিষেবা দেওয়া - বিভিন্ন জিনিস সম্পর্কে প্রয়োজনীয় সুবিধা গ্রাহকদের কাছে তুলে ধরা, বিশেষ ছাড় এবং সুবিধা সম্পর্কে তাদের বার্তা পাঠানো। 

আজকের এই প্রচারের যুগে নিজেদের প্রোডাক্ট এবং বিভিন্ন অফারকে গ্রাহক ও সম্ভাব্য গ্রাহকদের কাছে তুলে ধরতে সাহায্য করে বিকন। ব্র্যান্ডের মার্কেটিং স্ট্র্যাটেজি অনুযায়ী প্রচার, নিকটবর্তী সমস্ত ডিভাইসের কাছে বার্তা পৌঁছনো এবং পরিচিত কমিউনিকেশন প্ল্যাটফর্ম, যেখানে গ্রাহকেরা স্বচ্ছন্দ বোধ করেন, সেখানে বার্তা তুলে ধরতে পারে এই যন্ত্র।

৩। দোকানে শপিংয়ের উপভোগ্য অভিজ্ঞতা - ইন-স্টোর নেভিগেশনের সাহায্যে স্টোরের কোন প্রান্তে কোন জিনিস পাওয়া যায় তা খুঁজে পেতে সাহায্য করা। 

একজন ক্রেতা কোনও বড় স্টোরে গিয়ে একসঙ্গে কয়েকশো ধরণের জিনিস দেখতে পান। বিভিন্ন সেকশন, আলাদা ফ্লোর, করিডর এবং সর্বোপরি অদক্ষ সাপোর্ট স্টাফেদের দরুণ কম সময়ে সঠিক জিনিস খুঁজে বার করতে বেশ বেগ পেতে হয়। বিকন অত্যন্ত দ্রুত প্রয়োজনীয় তথ্য খুঁজে বের করে, সেই বার্তা ক্রেতার কাছে পাঠিয়ে দেয়। সেইসঙ্গে যেসব জিনিসের চাহিদা বেশি তা উপলব্ধ কি না এবং সেই কাউন্টারে ভিড় কতখানি সেই তথ্যও পেয়ে যান ক্রেতা। এর সাহায্যে ডিজিটাল পেমেন্ট করে একই পদ্ধতিতে রশিদও পাওয়া যায়। ফলে একইসঙ্গে সময়, শক্তি এবং পুঁজি সংরক্ষণ করতে সক্ষম বিকন।

৪। গ্রাহকের প্রয়োজন সম্পর্কে ধারণা - ক্রেতাদের চাহিদা বুঝতে ব্যবসায়ীদের সহায়তা করা এবং সেই তথ্য CRM (Customer Relationship Managment)এ কাজে লাগানো।

ক্রেতাদের ফুটফল প্যাটার্ন, এন্ট্রি এবং একজিট সম্পর্কিত তথ্য, কতখানি সময় ক্রেতারা দোকানে ব্যয় করছেন, কোন কোন জায়গায় তাঁরা যাচ্ছেন, হিটম্যাপ, ট্রেন্ড, একজন গ্রাহক একবার দোকানে আসার পর আর আসছেন কিনা বা কতবার আসছেন, এসে কোন কোন জিনিস কিনছেন সেই সব সম্পর্কে ধারণা দিতে পারে এইধরণের যন্ত্র। কোনও দোকানের প্রতি ক্রেতাদের আগ্রহ, সেখানকার প্রতি নির্ভরযোগ্যতা গড়ে তোলা, গ্রাহক পরিষেবার দক্ষতা বৃদ্ধি এবং সর্বোপরি ক্রেতাদের চাহিদা সম্পর্কে সম্যক ধারণা গড়তে সাহায্য করে বিকন।

৫। গোপনীয়তা রক্ষা, অবস্থান এবং পেস্ট (পতঙ্গ) নয় বিকন 

বিকন নিজে থেকে কোনও তথ্য সংগ্রহ করে না, বা মার্কেটিং সংক্রান্ত কোনও মেসেজ আপনাকে পাঠায় না। বিকন শুধুমাত্র একটি আইডি দেখায়, যার সাহায্যে আপনার স্মার্টফোন কোনও অবস্থান এবং বিষয় বুঝতে পারে। অর্থাৎ বিকন আপনাকে খুঁজে বের করে না, আপনার ফোনই প্রয়োজনে কোনও বিকন খুঁজে নিতে পারে।

যেসমস্ত অ্যাপ লোকেশন ব্যবহার করে তারা কেন এবং কোন কোন তথ্য আপনার সম্পর্কে সংগ্রহ করছে তার নির্দিষ্ট ব্যাখ্যা থাকা উচিত। যেকোনও গ্রাহকের অবস্থান সম্পর্কিত তথ্য ডিলিট করা অর্থাৎ সম্পূর্ণরূপে মুছে ফেলার নির্দিষ্ট নির্দেশিকাও থাকা প্রয়োজন। কোনও অ্যাপ যদি বিশ্বাসযোগ্যতা অর্জন করতে চায় তাহলে তার অবশ্যই উচিত গ্রাহকদের অবস্থানগত এবং অন্যান্য তথ্য সম্পর্কে গোপনীয়তা বজায় রাখার সুনির্দিষ্ট নিয়মমেনে চলা।

বিকন আমাদের সামনে নতুন সম্ভাবনার দরজা খুলে দেয়। ফলে, স্বাভাবিকভাবেই ছোট, বড় যেকোনও ব্যবসায় এর ব্যবহার ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পাবে। একটা কথা মনে রাখতেই হবে অনলাইন হোক বা অফলাইন, নিজস্বতার কোনও বিকল্প নেই। কাউকে অনুসরণ করে নয়, নিজেদের মতো করে যারা এগিয়ে যেতে পারে তারাই সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য হয়ে ওঠে।